loading...









loading...

Royalbangla
ইন্দিরা রায়,ফুড এন্ড নিউট্রিশন নিয়ে অধ্যয়নরত
ইন্দিরা রায়,ফুড এন্ড নিউট্রিশন নিয়ে অধ্যয়নরত

মাইগ্রেন ও এর প্রতিকার

স্বাস্থ্য

আমাদের সকলেরই কমবেশি মাথা ব্যথা হয়ে থাকে। অনেক সময় কাজের চাপে বা অতিরিক্ত ঠান্ডা অথবা অতিরিক্ত গরম বা অনেক কারণের জন্য মাথা ব্যথা হয়ে থাকে। জীবনে মাথাব্যথা হয়নি এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া খুবই দুর্লভ। এক কথায় যাকে বলে অসম্ভব।

মাথাব্যাথার এই অন্যতম কারণ হচ্ছে মাইগ্রেন। কোন একটি জরিপে দেখা গেছে, প্রতি ৪ জন মহিলার মধ্যে ১ জন এবং প্রতি ১২ জন পুরুষের মধ্যে একজন পুরুষ কোন না কোন সময় মাইগ্রেনের সমস্যায় আক্রান্ত হন।

মাইগ্রেন একটি অসহনীয় অসুখের নাম। মাইগ্রেনের সমস্যা হলে আমরা অনেকেই নিজে থেকে বিভিন্ন ওষুধ, ক্যাফেইন, সরাসরি পুষ্টি গ্রহণসহ নানা কাজ করে থাকি। কিন্তু আমরা হয়তো অনেকেই জানি না যে, এগুলো মাইগ্রেনের তেমন কোনো উপকারে আসে না। আবার অনেকেই মনে করে থাকেন এটি কোন গুরুতর সমস্যা নয়। এছাড়াও আরো কিছু প্রচলিত ধারণা রয়েছে যেমন - এটি একটি সাধারণ মাথাব্যথা, সাপ্লিমেন্ট মাইগ্রেন নিরাময় করে থাকে ইত্যাদি।

তবে এই মাইগ্রেন কি? আসুন একটু জেনে নেই এই সম্পর্কে -

ধারণা করা হয়, মাইগ্রেন এক ধরনের নিউরোভাসকুলার ডিসঅর্ডার। কারণ এই সমস্যা মস্তিষ্কে সৃষ্টি হয় তারপর ধীরে ধীরে রক্তশিরায় ছড়িয়ে যায়। তবে কিছু কিছু গবেষক মনে করেন, নিউরোনাল বিষয়গুলো অধিকতর এ ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলে। অন্যদিকে কয়েকজন মনে করেন, রক্তশিরাই মূল প্রভাব ফেলে। আবার অনেকেই মনে করেন এই দু-ই বেশ গুরুত্বপূর্ণ

মাইগ্রেন শব্দের উৎপত্তি হচ্ছে গ্রীক শব্দ 'হেমিক্রোনিয়া ' থেকে যার অর্থ হল মাথার একদিকে ব্যথা। 'হেমি'শব্দের অর্থ হল অর্ধেক এবং 'ক্রনিয়ন ]' শব্দের অর্থ হচ্ছে খুলি থেকে সৃষ্টি।

মাইগ্রেন হচ্ছে একটি মাথাব্যথার ধরন। আক্রান্ত ব্যক্তির মাথার একপাশে তীব্র মাথাব্যথা হয়ে থাকে।এ সময় বমি, আলো ও আওয়াজ এ সংবেদনশীলতা দেখা যায়।এই ব্যথা কয় ঘন্টা থেকে শুরু করে কয়েক দিন পর্যন্ত হতে পারে।

মাইগ্রেনের ধরন -

মাইগ্রেন বিভিন্ন ধরনের হতে পারে। তবে সবারই 'সাধারণ মাইগ্রেন 'থাকে না। মাইক জেনে কিছু কিছু ধরণের নির্দেশিকা নিচে দেয়া হল -

1.আভাসহ মাইগ্রেন

2.আভা ছাড়া মাইগ্রেন

3.দীর্ঘস্থায়ী মাইগ্রেন

4.ব্রেনস্টেম আভাসহ মাইগ্রেন

5.ভেস্টিবুলার মাইগ্রেন

6.হেমিপ্লেজিক মাইগ্রেন

7.চক্রিও বমি সিনড্রম

8.ওষুধের অতিরিক্ত ব্যবহার

9.অন্যান্য মাথাব্যথা ব্যাধি

মাইগ্রেনের কারণ -

- দীর্ঘ সময় উপোস করে থাকা

- স্ট্রেস

- ঘুমের সমস্যা

- মেনস্ট্রুয়েশন।

- ওরাল কন্ট্রাসেপটিভ পিল ব্যবহার করা।

- অনিয়মিত খাদ্যাভ্যাস।

- হরমোন জনিত সমস্যা।

- মস্তিষ্কের অস্বাভাবিক কার্যক্রম

- পরিবেশগত সমস্যা ইত্যাদি।

- অনেক সময় আ্যালার্জিটিক কারনেও মাইগ্রেন দেখা যেতে পারে।

মাইগ্রেনের লক্ষণ -

- এর প্রধান লক্ষণ হচ্ছে যে কোন একপাশে মাঝারি থেকে তীব্র ধরনের ব্যাথা।

- বমি বমি ভাব।

- মনোযোগহীনতা।

- অতিরিক্ত গরম বা ঠান্ডা অনুভূত হওয়া।

ডায়েটের সাথে মাইগ্রেনের সম্পর্ক -

আজকাল মানুষ শারীরিক সুস্থতা নিয়ে অনেক সচেতন।তাই সবাই কমবেশি একটা ভালো খাদ্যাভ্যাস অনুসরণ করতে চেষ্টা করেন। বর্তমানে অনেক ধরনের খাদ্যাভ্যাস লক্ষ্য করা যায়। এদের মধ্যে কিটো ডায়েট অন্যতম ।

বিশেষজ্ঞদের মতে , কিটো ডায়েটে কার্বোহাইড্রেটের পরিমাণ কম আর ফ্যাটের পরিমাণ বেশি থাকে। এই ফ্যাট থেকে পাওয়া এনার্জি মাইগ্রেনের ঘন ঘন ব্যথা হওয়ার প্রবণতা কমায়। তবে এই ডায়েট শুরু করার আগের অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

আবার অনেকে সাধারণ খাদ্যাভ্যাসও অনুসরণ করে থাকেন। তবে সেইসব খাদ্যাভাসে প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় নিয়ম করে টাটকা শাকসবজি ফলমূল, ক্যালসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম যুক্ত খাবার সমূহ, ভিটামিন বি কমপ্লেক্স রেখে থাকেন।কিন্তু অ্যামাইনো অ্যাসিড টাইরামিনযুক্ত খাবারগুলো খাদ্যতালিকা থেকে বাদ দিতে হবে।

মাইগ্রেন হলে কোন ধরনের খাবার গ্রহণ করা উচিত -

প্রথমেই আসি খাবারের কথায়। মাইগ্রেনের জন্য আমরা যে ধরনের খাবার গ্রহণ করতে পারি -

ক্যালসিয়ামসমৃদ্ধ খাবার: দুধ, দই, বিনস, ব্রকলি, তিসি, তিল, কমলালেবু, পেঁপে, পোস্তদানা, ব, টফু, পালং শাক, ঢ্যাঁড়স, কাঁটাসহ সব ধরনের ছোট মাছ, রুই, বাটা, ফলি, কাতলা, শিং, কাঁকড়া, মাগুর, সরপুঁটি ইত্যাদি।

ম্যাগনেশিয়ামসমৃদ্ধ খাবার: সবুজ শাকসবজি, বিনস, ব্রকলি, নাটস, তিল, কলা, সি ফুড, চিনাবাদাম, ও ঢেঁকিছাঁটা চাল, ভুট্টা, চিড়া, আটা, মুগডাল, মাষকলাইয়ের ডাল, ছোলার ডাল, পেঁয়াজকলি, মুলা, গুঁড়া দুধ, বরবটি, কাজুবাদাম, নারকেল, পাকা আম, জিরা, আদা ইত্যাদি।

ভিটামিন বি২, ভিটামিন বি৬,ভিটামিন বি৩ সমৃদ্ধ খাবার: দুধ, টুনা মাছ, ব্রকলি, কাঠবাদাম, ডিম, মাশরুম,চীনবাদাম, আখরোট, কাঠবাদাম, তিল, সূর্যমুখীর বীজ, ডাবলি বুট, সবুজ মুগডাল, আপেল, খেজুর, আম, ডুমুর, কলা, ডিম, টুনা মাছ, মুরগির মাংস,শজনেপাতাইত্যাদি।

মাইগ্রেনের জন্য যেসব পানীয় পান করা উচিত -

পানি বেশি বেশি পানি পান করলে মাইগ্রেনের আশঙ্কা কমে। তবে শরীর হাইড্রেটেড রাখতে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

ভেষজ চা শরীর হাইড্রেটেড রাখতে ভেষজ চা হতে পারে অন্যতম উপকারী পানীয়।

তরমুজ তরমুজের মতো ফলে ৯২ শতাংশ পানি থাকে। এটা খেলে পানি স্বল্পতা কমে, খিদে কমে এবং মাইগ্রেনের আশঙ্কা কমে যায়।

এছাড়াও বিভিন্ন ফলের জুস প্রতিনিয়ত পান করা যায়। খাদ্য তালিকায় নিয়মিত লেবু পানিও রাখা যেতে পারে।

কিন্তু মাইগ্রেনের সমস্যা দেখা দিলে জাঙ্ক ফুড, প্রসেসড ফুড , বাজারের খোলা খাবার, উচ্চ মসলাযুক্ত খাবার, অ্যালকোহল , ধূমপান বাদ দিয়ে চলা উচিত।

মাইগ্রেন আক্রমণে কেমন অনুভূতি হয়?

মাইগ্রেনে সাধারণত মাথার একপাশে প্রচণ্ড কেঁপে কেঁপে ব্যথা বা অনুভূতি সৃষ্টি করতে পারে। মাইগ্রেন হলে প্রায়শই বমি বমি ভাব বা বমি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে এবং এটি আলো, শব্দ, ও তীব্র গন্ধের প্রতি চরম সংবেদনশীল হয়। মাইগ্রেনের আক্রমণ কয়েক ঘন্টা থেকে কয়েক দিন স্থায়ী হতে পারে এবং ব্যথা এতটাই খারাপ হতে পারে যে এটি দৈনন্দিন কাজকর্মকে মারাত্নকভাবে ব্যহত করে।কখনও কখনও যন্ত্রণার তীব্রতা এমন আকার ধারণ করে যে, কাজ তো দূর, শুয়েও আরাম পাওয়া যায় না। মাইগ্রেনের ব্যথা বুঝে ওঠার আগেই ব্যথা অনেকটা দূর পৌঁছে যায়।

নিউরোলজিস্টরা মনে করেন, অগোছালো জীবনযাত্রা ও অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস এর জন্য দায়ী।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, পুরুষদের তুলনায় নারীদের মাইগ্রেনের সমস্যা বেশি দেখা যায়। হরমোনের তারতম্যই এর মূল কারণ।এ ছাড়া নারীদের শরীরে ইস্ট্রোজেন হরমোনের কারণে অনেক নারীই মাইগ্রেন সমস্যায় আক্রান্ত হন।

অনেক মেয়ের বয়ঃসন্ধিক্ষণে প্রথম পিরিয়ডের সময় মাইগ্রেনের সমস্যাও শুরু হতে পারে আবার মেনোপজের পরে এই সমস্যা দূর হয়ে যায়। যে নারীরা ওরাল কনট্রাসেপটিভ পিল খান তাদের ক্ষেত্রেও মাইগ্রেনের সমস্যা বেশি দেখা যায়।

কোন খাবারে মাইগ্রেন তাড়াতাড়ি কমে -

- কলা

- তরমুজ

- মাশরুম

- রঙিন শাকসবজি ফলমূল

- বাদাম বীজ

- ভেষজ চা

- ডার্ক চকলেট

- লবঙ্গ

মাইগ্রেনের চিকিৎসা -

1.প্রতিদিন সময়মতো ঘুমাতে হবে।

2.প্রতিদিন অন্তত ৭ থেকে ৮ ঘণ্টা ঘুম হতে হবে।

3.অতিরিক্ত বেশি আলো বা অতিরিক্ত কম আলোতে কাজ করা যাবে না।

4.মোবাইল, কম্পিউটার ল্যাপটপ, টিভি দীর্ঘ সময় ধরে দেখা যাবে না।

5.তীব্র ঠান্ডায় অথবা অতিরিক্ত রোদে বাইরে যাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।

6.প্রচুর পানি পান করতে হবে।

7.মাথায় ঠান্ডা কাপড় জড়িয়ে রাখা যেতে পারে

8.শ্বাসের ব্যায়াম করা যেতে পারে।

9.অনিয়মিত জীবনযাপন পরিহার করতে হবে।

10.ডাক্তারের পরামর্শ অনুসারে নিয়মিত ওষুধ গ্রহণ করতে হবে।

মাইগ্রেন একটি মানুষের সাধারণ জীবন ধারাকে ব্যাহত করে। মাথাব্যথার তীব্রতা বেড়ে গেলে কারো কারো ক্ষেত্রে এটি মোকাবিলা করা অনেক কষ্টসাধ্য হয়ে যায়।তবে সঠিক চিকিৎসা এবং নিয়মিত জীবন যাপনের ফলে এই সমস্যা সহজেই নিরাময় পাওয়া যায়। তাই অবহেলা না করে মাথাব্যথা কে গুরুত্ব দিয়ে সঠিক চিকিৎসা নিয়ে আমাদেরকে সুস্থভাবে বেঁচে থাকার চেষ্টা করতে হবে এবং সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে।

লেখিকা
ইন্দিরা রায়
ফুড এন্ড নিউট্রিশন নিয়ে অধ্যয়নরত

  1. royalbangla.com এ আপনার লেখা বা মতামত বা পরামর্শ পাঠাতে পারেন এই এ‌্যড্রেসে [email protected]
পরবর্তী পোস্ট

টক দই নাকি মিষ্টি দই?


মাইগ্রেন থেকে দূরে থাকবেন কিভাবে?

নুসরাত জাহান, ডায়েট কনসালটেন্ট
আপনার কি প্রায়ই মাথা ঘুরায়?

পুষ্টিবিদ জয়তী মুখার্জী
মাইগ্রেন ও এর প্রতিকার

ইন্দিরা রায়,ফুড এন্ড নিউট্রিশন নিয়ে অধ্যয়নরত

হিমোফিলিয়া: রক্ত জমাট বাঁধা জনিত রোগ

ডাঃ গুলজার হোসেন ,বিশেষজ্ঞ হেমাটোলজিস্ট
হিমোফিলিয়া একটি বংশানুক্রমিক জিনগত রোগ। মানবদেহে রক্ত জমাট বাঁধার জন্য কিছু বিশেষ ব্যবস্থা আছে। রক্ত জমাট বাঁধার প্রক্রিয়ায় কাজ করে রক্তের অণুচক্রিকা এবং বেশ কয়েকটি ফ্যাক্টর (বিষয়)। ......
বিস্তারিত

মানসিক স্বাস্থ্য ভাল রাখতে শরীরচর্চা বা ব্যায়াম কতটা দরকারি?

Dr. Fatema Zohra
আপনি কি জানেন যে ব্যায়াম আপনাকে মানসিকভাবে সুস্থ রাখতে সাহায্য করতে পারে? গবেষণা দেখায় যে যারা নিয়মিত ব্যায়াম করে তারা মানসিক স্বাস্থ্য সচেতন এবং তাদের মানসিক অসুস্থতা নিম্ন হারে থাকে।ব্যায়াম গ্রহণ মানসিক অসুস্থতার ঝুঁকি কমাতে সহায়ক হয়...
বিস্তারিত

লিভারের সুস্থতায় কি করবেন ? কি খাবেন?

নুসরাত জাহান, ডায়েট কনসালটেন্ট
স্ট্রেস থাকলে খাবেন না- বোর হলে, এনার্জি কম লাগলে কী করি আমরা? অনেকেই এই সময় খাবার খেয়ে মুড ঠিক করতে চান। চিকিত্সকরা জানাচ্ছেন লিভার সুস্থ রাখতে স্ট্রেসের সময় খাবার ছোঁবেন না।....
বিস্তারিত

হার্ট এটাক সম্পর্কে যেসব তথ্য সবার জানা দরকার

ডা: অনির্বাণ মোদক পূজন
বয়স, উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা, উচ্চ কোলেস্টোরলের সমস্যা, অতিরিক্ত মেদ, অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস, মদ্যপান, মানসিক চাপ—এগুলি মূলত হার্ট অ্যাটাকের কারণ।.................
বিস্তারিত

জরায়ুর মুখে ক্যান্সার

ডাঃ হাসনা হোসেন আখী,এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য),এমএস (অবস এন্ড গাইনী)
একদিন বা একমাসে হঠাৎ করে জরায়ু-মুখে ক্যান্সার হয় না । জরায়ু মুখ আবরণীর কোষগুলোতে বিভিন্ন কারণে সামান্য পরিবর্তন হতে পারে। এই পরিবর্তন ধীরে ধীরে ক্যান্সারের রূপ নেয় ।..........
বিস্তারিত

কম বয়সে হার্টের সমস্যা ও করণীয়

ডা: অনির্বাণ মোদক পূজন
হার্টের অসুখের সমস্যায় যে শুধু বয়স্করাই ভোগেন তা নয়। এখন হার্ট সমস্যা অল্প বয়সে ভালোই বিপজ্জনক। হার্টের সমস্যা আজকাল বয়সের হিসাব করে আসছে না। মাঝরাতে হঠাৎ বুকে ব্যথা।........
বিস্তারিত

মাইগ্রেন থেকে দূরে থাকবেন কিভাবে?

নুসরাত জাহান, ডায়েট কনসালটেন্ট
মাইগ্রেন এক বিশেষ ধরনের মাথাব্যথা। মাথার যে কোনও এক পাশ থেকে শুরু হয়ে তা মারাত্মক কষ্টকর হয়ে ওঠে। তাই একে ‘আধ-কপালি ’ ব্যথাও বলা হয়ে থাকে। মাইগ্রেনের যন্ত্রণা অত্যন্ত কষ্টদায়ক এবং দীর্ঘস্থায়ী। যাঁদের মাইগ্রেনের সমস্যা রয়েছে, তীব্র মাথা যন্ত্রণার পাশাপাশি তাঁদের বমি বমি ভাব, শরীরে এবং মুখে অস্বস্তিভাব দেখা দিতে পারে। .........
বিস্তারিত

কিভাবে ধূমপান ছাড়বেন?

জিয়ানুর কবির
যারা ধূমপান করেন তারা প্রায়ই ধূমপান ছাড়তে চান কিন্তু ধূমপান ত্যাগ করা খুবই কঠিন। এক গবেষণায় দেখা যায়, বাংলাদেশের ৬৬ শতাংশ ধূমপায়ীর ধূমপান ছেড়ে দেওয়ার ইচ্ছা আছে। ধূমপান ছাড়ার তেমন কোন উপায় না থাকলেও গবেষণায় দেখা যায় যে, যারা নিয়মিত সাইকোলজিক্যাল থেরাপি নিয়েছেন তাদের ধূমপান ছাড়ার ক্ষেত্রে বেশ সফলতা পেয়েছেন। ....
বিস্তারিত

গ্যাসের সমস্যা ওষুধ খেয়ে না কমিয়ে প্রাকৃতিক উপায়ে কমান

ডায়েট কনসালটেন্ট নুসরাত জাহান
গ্যাসের সমস্যায় আমরা কম বেশি সকলেই ভুগি। বেশিক্ষণ কিছু না খেয়ে থাকলেই গ্যাস হয়ে যায় আমাদের পেটে। তার থেকে শুরু হয় বুকে পেটে ব্যথা, মাথা ধরা, গা বমি ভাব ইত্যাদি। অনেকের আবার গ্যাসের সমস্যা থেকে গ্যাস্টিকও হয়ে যেতে পারে।...
বিস্তারিত

এলার্জি কিভাবে কমাবেন?

Dietitian Shirajam Munira
একজন ভালো মানুষ। হঠাৎ তার প্রচন্ড চুলকানি, চাকা চাকা লাল ফুসকুড়ি। এমন সমস্যা প্রকৃতপক্ষে ছোটো মনে হলেও এর ভয়াবহতা আপনাকে মৃত্যুর দিকেও ঠেলে দিতে পারে। আজকের টপিকস এলার্জি নিয়ে। .....
বিস্তারিত

গ্রিন টি বা সবুজ চা কেন খাবেন ?

Nusrat Jahan
গ্রিন টি হল পৃথিবীতে পরিচিত প্রাচীনতম ভেষজ চা, যা জনপ্রিয়তা পেয়েছে চীনে আবিষ্কারের প্রায় ৪০০০ বছরেরও বেশি সময় পরে।শরীরে চাঙ্গাভাব নিয়ে আসতে একটা স্বাস্থ্যকর পানীয় হিসেবে গ্রিন টি প্রাধান্য পাওয়া উচিত।.....
বিস্তারিত

ভাত কতটা ওজন বাড়ায়?

পুষ্টিবিদ তাহমিনা আক্তার
কেবল মাত্র ভাতই ওজন বাড়ায়। আপনি ভাত খাচ্ছেন না অথচ ভাঁপা পিঠা, পায়েস, ফুচকা, নান-গ্রিল, বিস্কুট, সিঙ্গারা ইত্যাদি খাচ্ছেন তো লাভ কি হল? বরং আপনি ভাতের চেয়ে বেশি ক্যালরি খেয়ে নিচ্ছেন। আমরা বাঙালি রা দেখা যায় ভাত খেয়ে অভ্যস্ত, তাই ভাত না খেয়ে ডায়েট করলে দেখা যায় অন্য খাবারের প্রতি অাগ্রহটা বেড়ে যায়।.....
বিস্তারিত

দাঁতের ডাক্তারের কাছে যেতে ভীতি এবং করণীয়


ডা: এস.এম.ছাদিক,ওরাল এন্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারী

অ্যামনিওটিক ফ্লুইড কি এবং এর প্রয়োজনীয়তা কি?


ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা),Consultant Sonologist

শালগম এর উপকারীতা


পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন,পুষ্টি কর্মকর্তা

মৌসুমি ডিপ্রেশন মোকাবিলায় কতখানি প্রস্তুত!!


জিয়ানুর কবির,ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিষ্ট

No Junk Food for Child- বাচ্চাকে যে কারণে জাঙ্কফুড খাওয়া বারণ


নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,

এক্টোপিক গর্ভাবস্থা - কারণ, লক্ষণ, এবং চিকিত্সা


ডাঃ হাসনা হোসেন আখী,এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য),এমএস (অবস এন্ড গাইনী)

ফাস্টফুডকে না বলুন


পুষ্টিবিদ মুনিয়া মৌরিন মুমু

নিয়মিত সাঁতার কাটার উপকারীতা


ডা: অনির্বাণ মোদক পূজন,হৃদরোগ, বাতজ্বর ও উচ্চ রক্তচাপ রোগ বিশেষজ্ঞ

মিসড গর্ভপাত (missed abortion / missed miscarraige)


ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা) ,Consultant Sonologist

অস্বস্তিকর পেটের পীড়া- পেটফাঁপা থেকে দূরে থাকার উপায়


পুষ্টিবিদ মুনিয়া মৌরিন মুমু,নিউট্রিশনিস্ট

ভালোবাসার মনস্তত্ত্ব


জিয়ানুর কবির, ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিষ্ট

বিশেষ শিশু পর্ব-১


নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,Bsc (Hon's) Msc (food & Nutrition)

মানসিক স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে আমাদের করণীয়


ডা. ফাতেমা জোহরা , মনোরোগ, যৌনরোগ ও মাদকাসক্তি নিরাময় বিশেষজ্ঞ

এত গ্যাস্ট্রিক আলসার এর রোগী,সমাধান কি???


ডা: অনির্বাণ মোদক পূজন,হৃদরোগ, বাতজ্বর ও উচ্চ রক্তচাপ রোগ বিশেষজ্ঞ

ছোট বাচ্চাদের দাঁতের সমস্যা Nursing bottle caries (দাঁতে পোকা) হলে করণীয়


ডা: এস.এম.ছাদিক, ওরাল এন্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারী

থ্রেটেন্ড গর্ভপাত (Threatened abortion)


ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা) ,Consultant Sonologist

কোমর ব্যথায় করণীয়


ডা: অনির্বাণ মোদক পূজন,হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ও মেডিসিন চিকিৎসক

বিষন্নতার চেনা গল্প: যেসব কারণে বিষন্নতাকে অবহেলা করা উচিত নয়


ডা. ফাতেমা জোহরা,মনোরোগ, যৌনরোগ ও মাদকাসক্তি নিরাময় বিশেষজ্ঞ

গর্ভধারণ এবং স্তন ক্যান্সার পর্ব- ২


ডাঃ লায়লা শিরিন,অধ্যাপক,জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইন্সটিটিউট ও হাসপাতাল

মিসড গর্ভপাত (missed abortion / missed miscarraige)


ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা) ,Consultant Sonologist

অস্বস্তিকর পেটের পীড়া- পেটফাঁপা থেকে দূরে থাকার উপায়


পুষ্টিবিদ মুনিয়া মৌরিন মুমু,নিউট্রিশনিস্ট

ভালোবাসার মনস্তত্ত্ব


জিয়ানুর কবির, ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিষ্ট

বিশেষ শিশু পর্ব-১


নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,Bsc (Hon's) Msc (food & Nutrition)

মানসিক স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে আমাদের করণীয়


ডা. ফাতেমা জোহরা , মনোরোগ, যৌনরোগ ও মাদকাসক্তি নিরাময় বিশেষজ্ঞ