loading...









loading...

Royalbangla
ডা. মুহম্মদ মুহিদুল ইসলাম,সায়েন্টিফিক অফিসার
ডা. মুহম্মদ মুহিদুল ইসলাম,সায়েন্টিফিক অফিসার

মুত্রনালির সংক্রমন: প্রস্রাবের সমস্যা ও জটিলতা

টিপস

মূত্রনালির সংক্রমণ (ইংরেজিঃ urinary tract infection) বা ইউটিআই (UTI) হল মূত্রনালির এক ধরনের ব্যাকটেরিয়াঘটিত সংক্রমণ। যখন এর ফলে মূত্রনালির নিম্নাংশ আক্রান্ত হয়, তখন তাকে মূত্রথলির সংক্রমণ (বা সিস্টাইটিস) বলে আর যখন এর ফলে মূত্রনালির ঊর্ধ্বাংশ আক্রান্ত হয়, তখন তাকে কিডনির সংক্রমণ (বা পায়েলোনেফ্রাইটিস) বলে । মূত্রনালির নিম্নাংশের সংক্রমণের ক্ষেত্রে যেসব উপসর্গ দেখা যায় সেগুলো হল মূত্রত্যাগের সময় ব্যথা অনুভব করা, ঘন ঘন প্রস্রাব হওয়া এবং মূত্রথলি খালি থাকা সত্ত্বেও প্রস্রাব করার প্রয়োজন অনুভূত হওয়া। তবে যাদের পায়েলোনেফ্রাইটিস হয়, তাদের ক্ষেত্রে সাধারণত মূত্রনালির নিম্নাংশের সংক্রমণে যেসব উপসর্গ দেখা যায় সেগুলো ছাড়াও, জ্বর এবং পার্শ্বদেশে ব্যাথা (Flank pain) থাকতে পারে। কদাচিৎ প্রস্রাবের সঙ্গে রক্তও আসতে পারে। খুব বয়স্ক এবং খুব কম বয়সীদের ক্ষেত্রে উপসর্গগুলো অস্পষ্ট বা অনির্দিষ্ট ধরনের হতে পারে। পুরুষদের তুলনায় নারীদের মধ্যে এই সংক্রমণে বেশি দেখা যায়। নারীদের ক্ষেত্রে এ সংক্রমণ প্রধানত ব্যাকটেরিয়ার কারণে হয়। প্রতি বছর প্রায় ১০% নারীর মূত্রনালির সংক্রমণ হয় এবং অর্ধেক সংখ্যক নারীই জীবদ্দশায় অন্তত একবার হলেও এই সংক্রমণের শিকার হন। ১৬ থেকে ৩৫ বছর বয়সে এ সংক্রমণ বেশি হয়। প্রায়শই এই সংক্রমণের পুনঃসংঘটন দেখা যায়। সেই প্রাচীন কাল থেকেই মূত্রনালির সংক্রমণের বর্ণনা পাওয়া যায়।

কি ভাবে শহুরে জীবন যাপনের প্রণালী ইউ টি আই এর মতো রোগ সৃষ্টি করতে পারে সে বিষয়ে নজর দিব। ঢাকা শহর তথা সমগ্র শহর এলাকায় রাস্তাঘাটে নারীদের জন্য টয়লেটের ব্যবস্থা খুবই অপ্রতুল। কোন কোন জায়গায় টয়লেট থাকলেও বেশির ভাগ সময় সেগুলো একেবারেই ব্যবহারের অনুপযোগী। এ কারণে পথে ঘাটে টয়লেটে যাওয়ার দরকার হলে খুবই বিপদে পড়েন অনেক নারী। এজন্য নারীদের মধ্যে দীর্ঘ সময় ধরে টয়লেট চেপে রাখা এবং পথে যাতে টয়লেট না চাপে সেজন্য কিছু না খাওয়া বিশেষ করে পানি পান না করার প্রবণতা দেখা যায়। দীর্ঘ সময় পায়খানা ও প্রস্রাব চেপে রাখার ফলে নারীরা নানা রকম শারীরিক জটিলতার মধ্যে পড়েন। বিষেশজ্ঞেরা বলছেন, কেবল নারীরা নন, এজন্য পুরুষেরাও ভুগতে পারেন মূত্রনালিতে সংক্রমণসহ নানা ধরণের জটিলতায়।

জটিলতার ধরনঃ

চিকিৎসকের মতে টয়লেট চেপে রাখার কারণে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েন নারীরা। এজন্য মূত্রনালির সংক্রমণসহ নানা ধরণের সমস্যা হতে পারে। 'এর ফলে সবচেয়ে বেশি হয়, ইউরিনারি ট্র্যাক ইনফেকশন বা ইউটিআই, যাকে বলা হয় মূত্রনালির সংক্রমণ। এটা হয়ই বেশিক্ষণ প্রস্রাব চেপে রাখলে ব্লাডারে যে জীবাণু জন্মায় তা থেকে। এটা পরবর্তীতে অন্য সমস্যা তৈরি করে। যেমন বারবার যদি কারো ইউটিআই হয়, তাহলে তা নারীর প্রজনন ক্ষমতার ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে।' প্রস্রাবে ইউরিয়া এবং অ্যামিনো অ্যাসিডের মতো টক্সিন জাতীয় পদার্থ থাকে। ফলে বেশিক্ষণ চেপে রাখার ফলে বিষাক্ত পদার্থ কিডনিতে পৌঁছে কিডনিতে স্টোন বা পাথর তৈরি করতে পারে।

'এছাড়া প্রস্রাব চেপে রাখার কারণে ব্লাডার ফুলে যেতে পারে। সেই সঙ্গে কারো যদি আগে থেকে কিডনিতে কোন সমস্যা থাকে এবং সে নিয়মিত প্রস্রাব চেপে রাখে তাহলে ক্রমে তার কিডনি কার্যক্ষমতা হারাতে শুরু করবে ।'

এজন্য রক্তের বিভিন্ন সংক্রমণসহ নানা ধরণের সংক্রমণ হতে পারে।

কেবলমাত্র টয়লেট চেপে রাখার কারণে শ্বাসকষ্ট এবং ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণও হতে পারে। এছাড়া প্রস্রাব করার সময়ে প্রচণ্ড ব্যথাও অনুভব করতে পারেন একজন মানুষ।

পস্রাবের জটিলতা ও কী তার প্রতিকারঃ

চিকিৎসক, গবেষক এবং সামাজিক বিজ্ঞানীরা বলছেন, বাংলাদেশে শহুরে এলাকার কর্মজীবী নারীরা এবং শিক্ষার্থীরাই মূলত বাড়ির বাইরে বের হলে টয়লেট চেপে রাখেন।

এজন্য কেবল রাস্তাঘাটে পাবলিক টয়লেটের অপ্রতুলতা দায়ী তা নয়। কর্মস্থল, শপিং মল, হাসপাতাল কিংবা পার্কের মত পাবলিক প্লেসে টয়লেটের বিশেষ করে ব্যবহার উপযোগী টয়লেটের অপ্রতুলতা দায়ী।

তবে, টয়লেট চেপে রাখার কারণে কত নারী সমস্যায় পড়েন কিংবা কী ধরণের সমস্যা বেশি হয়, তা নিয়ে কোন গবেষণার কথা জানা যায় না

এক গবেষণা জরিপে দেখা গেছে রাস্তায় কর্মরত অবস্থায় নারী পুলিশ সদস্যরা টয়লেট চেপে রাখার কারণে অনেকেই ইউরিন ইনফেকশনসহ নানা ধরণের সমস্যায় ভুগছেন। টয়লেট চেপে রাখা ঠেকাতে নারীদের নিজেদের শরীরের ব্যপারে সচেতন হতে হবে। অর্থাৎ টয়লেট পেলে চেপে না রেখে মোটামুটি ব্যবহারযোগ্য একটি জায়গায় গিয়ে কাজ সেরে ফেলতে হবে। এক্ষেত্রে বাড়ির মেয়েটিকে সচেতন করা এবং উৎসাহ দিতে পরিবারকে প্রধান ভূমিকা পালন করতে হবে।

কখন চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবেঃ

যখনই কোন নারীর প্রস্রাবে জ্বালাপোড়া হবে, প্রস্রাবের রাস্তায় চুলকানি হবে এবং তলপেটে ব্যথা হবে, তখন চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। এই রোগটি জীবাণু দ্বারা হয়ে থাকে বলে একবার ইউটিআই হয়ে গেছে এমনটা নির্নয় হলে তখন অ্যান্টিবায়োটিক ছাড়া উপায় থাকে না। অ্যান্টিবায়োটিক ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করে রোগীক সুস্থ করে তোলে। কিন্তু বাজারে তো অনেক ধরনের অ্যান্টিবায়োটিক পাওয়া যায় কিন্তু সব অ্যান্টিবায়োটিকই যে একজন রোগীর কাজ করবে এমনটা ভাবার কোন কারণ নেই। এটা নির্ভর করে ঐ রোগী কী জীবাণু দ্বারা আক্রান্ত হয়েছেন তার উপর। কারণ এক এক অ্যান্টিবায়োটিক এক এক জীবাণুর প্রতি সংবেদনশীল। তাই ওষুধ খাওয়ার আগে পরিপূর্ণ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ীই খাওয়া উচিত। অনেকের দেখা যায় সঠিক চিকিৎসার অভাবে এই রোগ বারবার ফিরে আসে, সেক্ষেত্রে অল্প মাত্রার অ্যান্টিবায়োটিক দিয়ে দীর্ঘমেয়াদী চিকিৎসা বেশ কার্যকরী।

প্রতিকারে যা করতে পারেন

(১) প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন । দিনে কমপক্ষে ৮ গ্লাস বা অন্তত ৩ লিটার পানি পান করুন।

(২) যখনই প্রস্রাবের বেগ আসবে সাথে সাথে প্রস্রাব করে ফেলুন, আটকিয়ে রাখবেন না।

(৩) পানির পাশাপাশি তরল খাবার যেমন ফলের জুস, ডাবের পানি ইত্যাদি বেশি বেশি পান করুন।

(৪) পাবলিক টয়লেট ব্যবহারের সময় খেয়াল রাখবেন সেটি পরিষ্কার কিনা। হাই কমোড ব্যবহারের সময় সেটা পানি দিয়ে ধুয়ে নিবেন, যদি সম্ভব না হয় তাহলে কমোডের উপর টিস্যু পেপার বিছিয়ে নেবেন এতে করে জীবাণু সহজে আপনার শরীরের সংস্পর্শে আসতে পারবে না।

(৫) একই কাপড় না ধুয়ে বেশিদিন পরিধান করা থেকে বিরত থাকুন। প্যান্টি নিয়মিত ধুয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে। কারণ অনেকদিন যাবত না ধুয়ে ব্যাবহার করলে তাতে জীবাণু বাসা বাধে এবং সংক্রমণ করার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

(৬) প্রস্রাবের পর যৌনাঙ্গ ভালো করে ধুয়ে নিন। মনে রাখবেন, যৌনাঙ্গ পরিষ্কার করার সময় সবসময় সামনে দিক থেকে পেছনে যাবেন, পেছন থেকে সামনে নয়। তা না হলে মলদ্বার থেকে জীবাণু সামনে চলে এসে সংক্রমণের ভয় থাকে।

(৭) সহবাসের পরে অবশ্যই বাথরুমে যান। ব্লাডার খালি করে দেওয়াই ভালো। কেননা ইন্টারকোর্সের সময় ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণের সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। সেখান থেকে বিভিন্ন ইনফেকশন হতে পারে। এছাড়াও সেক্সের সময় ব্যবহৃত গর্ভনিরোধ থেকেও সংক্রমণ হতে পারে।

(৮) সর্বপোরি পার্সোনাল হাইজিন বা ব্যক্তি জীবনে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখুন। এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

শতকরা ৬০ ভাগ মহিলা জীবনের কোন না কোন পর্যায়ে একবার হলেও ইউটিআই-এ আক্রান্ত হয়ে থাকেন। এই রোগটি সম্পূর্ণ ব্যক্তি জীবনের লাইফস্টাইলের উপর নির্ভরশিল। এটি ব্যক্তি থেকে ব্যক্তিতে সংক্রমিত হয় না। এতে প্রথম দিকে তেমন কোন সমস্যা না হলেও বারবার হতেই থাকলে ভয়াবহ বিপদ ডেকে আনতে পারে যে কারো জীবনে। তাই সময় থাকতেই নিজের যত্নে সচেতন হন। বিশেষ করে এই উপসর্গগুলো যদি বারবার ঘটে তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা নিতে হবে।

এই লেখকের সব লেখা পড়ুন নিচের লিংক থেকে।
www.royalbangla.com/DrMuhid

লেখক
ডা. মুহম্মদ মুহিদুল ইসলাম
সায়েন্টিফিক অফিসার
বিআইএইচএস হসপিটাল কোভিড-১৯ ল্যাব, ঢাকা
অনলাইন কনসালট্যান্ট ,বায়োমেড ডায়াগনস্টিক এন্ড রিসার্চ ল্যাবরেটরি
চিকিৎসা পরামর্শ নিতে এপয়েন্টমেন্ট নিন:
০১৬৮১২৫৬৩৩১
লেখকের সাথে যোগাযোগ করতে নিচের ফেসবুক পেইজে ক্লিক করুন

www.facebook.com/DrMuhid

  1. royalbangla.com এ আপনার লেখা বা মতামত বা পরামর্শ পাঠাতে পারেন এই এ‌্যড্রেসে [email protected]
পরবর্তী পোস্ট

একজন সিনিয়র প্রফেসর ডাক্তারের চেম্বারটি হতে পারে একটি ছোটখাট ইন্সিটিটিউশন


পাইলস কি, কেন এবং কিভাবে হয়?

Colorectal Care Dr. Md Ashek Mahmud Ferdaus
কোষ্ঠকাঠিন্য কি, এর জটিলতা ও সমাধান

Colorectal Care Dr. Md Ashek Mahmud Ferdaus
ইসবগুলের ভুসি খাওয়ার উপকারিতা ও নিয়ম

Colorectal Care Dr. Md Ashek Mahmud Ferdaus
পুরুষের বন্ধ্যাত্বের সমস্যা কেন বাড়ছে ?

ডাঃ আয়েশা রাইসুল
খারাপ কোলেস্টেরল কি ? কিভাবে কমানো যায় ?

পুষ্টিবিদ সিরাজাম মুনিরা
এলার্জি কিভাবে কমাবেন?

Dietitian Shirajam Munira
গ্যাসের সমস্যা ওষুধ খেয়ে না কমিয়ে প্রাকৃতিক উপায়ে কমান

ডায়েট কনসালটেন্ট নুসরাত জাহান
ধাতু রোগ কি? কেন কিভাবে হয়? কী করণীয়

royalbangla desk
মাইগ্রেন থেকে দূরে থাকবেন কিভাবে?

নুসরাত জাহান, ডায়েট কনসালটেন্ট
কিটো ডায়েটের নেগেটিভ দিক!

ডাঃ আয়েশা রাইসুল (গভঃ রেজিঃ H-১৫৯৮)
পুরুষের প্রস্টেট সমস্যা

ডাঃ মোহাম্মদ ইব্রাহিম আলী,এমবিবিএস,বিসিএস,এমএস(ইউরোলজী)
কম বয়সে হার্টের সমস্যা ও করণীয়

ডা: অনির্বাণ মোদক পূজন
হার্ট এটাক সম্পর্কে যেসব তথ্য সবার জানা দরকার

ডা: অনির্বাণ মোদক পূজন
'মাছ নাকি মাংস, কোনটা বেশি খাবো এবং কেন'

পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন,পুষ্টি কর্মকর্তা
বিভিন্ন কারণে হার্টের সমস্যা হলে কী করণীয়?

ডা: অনির্বাণ মোদক পূজন,হৃদরোগ, বাতজ্বর ও উচ্চ রক্তচাপ রোগ বিশেষজ্ঞ
কোলেস্টেরল কি ? কিভাবে ক্ষতি করে?

ডা. মুহম্মদ মুহিদুল ইসলাম,সায়েন্টিফিক অফিসার
দ্রুত বীর্যপাত কেন হয়? কিভাবে হয়? কিভাবে সমাধান করা যায়?

রয়ালবাংলা টিম
অ্যাসিডিটি: কি ? কেন? কিভাবে হয়?

পুষ্টিবিদ জেনিফা জাসিয়া,পুষ্টি বিষেষজ্ঞ
লিঙ্গের শীতলতা , লিঙ্গ শক্ত না হওয়ার সমস্যা বা ইরেক্টাইল ডিসফাংশনের জন ডায়েট

royalbangla desk
যৌনস্বাস্থ্যের জন্য ডায়েট

royalbangla desk

রক্তশূণ্যতা কী? কারণ, লক্ষণ ও প্রতিকার।

ডাঃ গুলজার হোসেন
রক্তের প্রধান দুটি উপাদান হলো রক্তকোষ ও রক্তরস। লোহিত রক্তকণিকায় থাকে হিমোগ্লোবিন নামের রঞ্জক পদার্থ, যা দেহের বিভিন্ন কোষে অক্সিজেন সরবরাহ করে।তাই হিমোগ্লোবিন কমে গেলে সারা শরীরে দেখা দেয় বিরূপ প্রতিক্রিয়া। আর রক্তে হিমোগ্লোবিন কমে যাওয়ার নাম হলো অ্যানিমিয়া বা রক্তশূন্যতা।......
বিস্তারিত

মাইগ্রেন থেকে দূরে থাকবেন কিভাবে?

নুসরাত জাহান, ডায়েট কনসালটেন্ট
মাইগ্রেন এক বিশেষ ধরনের মাথাব্যথা। মাথার যে কোনও এক পাশ থেকে শুরু হয়ে তা মারাত্মক কষ্টকর হয়ে ওঠে। তাই একে ‘আধ-কপালি ’ ব্যথাও বলা হয়ে থাকে। মাইগ্রেনের যন্ত্রণা অত্যন্ত কষ্টদায়ক এবং দীর্ঘস্থায়ী। যাঁদের মাইগ্রেনের সমস্যা রয়েছে, তীব্র মাথা যন্ত্রণার পাশাপাশি তাঁদের বমি বমি ভাব, শরীরে এবং মুখে অস্বস্তিভাব দেখা দিতে পারে। .........
বিস্তারিত

ফিটাল গ্রোথ স্ক্যান (Fetal Growth Scan) কি, কখন এবং কেন করা প্রয়োজন।

ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা),Consultant Sonologist
ফিটাল গ্রোথ স্ক্যান হ'ল এক প্রকার আল্ট্রাসাউন্ড স্ক্যান যা গর্ভধারণের ২৪ সপ্তাহের পর হতে প্রসবের পূর্ব পর্যন্ত যে কোন সময় শিশুর বৃদ্ধি ও সুস্থতা নির্ধারণ করতে করা হয়ে থাকে। এটি এক বা একাধিক বার করা যেতে পারে (প্রয়োজন অনুসারে)।...........
বিস্তারিত

আপনি জানেন কি? শারীরিক পরিশ্রমে, ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে?

ডা. মোহাম্মদ মাসুমুল হক,আবাসিক চিকিৎসক, ক্যান্সার সোসাইটি হাসপাতাল এন্ড ওয়েলফেয়ার হোম
প্রতিদিন গড়ে অন্তত ৩০-৬০ মিনিট করে, সপ্তাহে ০৫ দিন (মোট ১৫০-৩০০ মিনিট) এমন কিছু কায়িক পরিশ্রম, যাতে হৃদ স্পন্দন বৃদ্ধি পায় ও ঘাম হয়। .........
বিস্তারিত

কেন 'টেস্ট' দেন চিকিৎসক?

Dr.Afjal Hossain
চিকিৎসা নিতে গেলে প্রায়ই চিকিৎসকেরা আমাদের নানা শারীরিক পরীক্ষা (টেস্ট) করতে দেন। আমরা বুঝি না কেন এসব পরীক্ষা করা হচ্ছে? রোগের চিকিৎসায় এটি কতটা কাজে লাগবে?........
বিস্তারিত

একজন অন্তর্মুখী মানুষকে চিনবো কিভাবে?

ডা. মুহম্মদ মুহিদুল ইসলাম,সায়েন্টিফিক অফিসার
এঁদের পছন্দকারী মানুষের সংখ্যা অনেক সময় তুলনামূলকভাবে কম হয়। অন্তর্মুখী স্বভাবের জন্য অনেকেই অহংকারী ভেবে বসতে পারে।.......
বিস্তারিত

ফিটাল পাইলেক্টেসিস এবং হাইড্রোনেফ্রোসিস (Fetal Pyelectasis & hydronephrosis)

ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা),Consultant Sonologist
বুঝার জন্য, প্রথমে মূত্রতন্ত্র কিভাবে কাজ করে তা বুঝা দরকার। সহজ কথায় বলা যায়, কিডনি রক্ত ফিল্টার করে শরীর থেকে বর্জ্য পদার্থ অপসারণ করে যা প্রস্রাবের মাধ্যমে শরীর থেকে বের হয়ে যায়। কিডনি থেকে প্রস্রাব কিডনির পেলভিসে জমা হয়,.......
বিস্তারিত

ক্যান্সার চিকিৎসার সময় কি কি লক্ষণ দেখা দিলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিবেন??

DR. MOHAMMAD MASUMUL HAQUE,Cancer Prevention Physician
ক্যান্সার চিকিৎসা একটি দীর্ঘ মেয়াদি চিকিৎসা। এবং এই চিকিৎসার যেহেতু কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া রয়েছে তাই এই চিকিৎসা চলাকালীন একজন ব্যক্তির কিছু শারীরিক সমস্যা বা উপসর্গ দেখা দিতে পারে।......
বিস্তারিত

IBS (Irritable Bowel Syndrome) ইরিটেবল বাওয়েল সিনড্রোম বা বদহজমের সমস্যায় কী করণীয়?

ডা. মুহম্মদ মুহিদুল ইসলাম,সায়েন্টিফিক অফিসার
বৃহদান্ত্রের খুব কমন সমস্যা হচ্ছে IBS । আমাদের পরিচিত অনেকেই হয়ত IBS এ আক্রান্ত।এ রোগটা কিছুটা অস্বস্তিকর। মাঝে মাঝে কিছু খেলেই এমনকি মানসিক চাপে থাকলেও এই রোগের লক্ষন বেড়ে যায়।বারবার বাথরুমে ছোটাছুটি করা লাগে।........
বিস্তারিত

বাচ্চাদের খাবারে কিছু কমন রুলস আমাদের কে মেনে চলতে হবে.........

নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,Bsc (Hon's) Msc (food & Nutrition)
১. খাবারে বৈচিত্র্য রাখা! ২. বাচ্চাকে ঘরোয়া খাবারে অভ্যস্ত করা.....
বিস্তারিত

ইতিবাচক বিবৃতি

জিয়ানুর কবির,ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিষ্ট
নিজের স্বাস্থ্যকর ইমেজ নির্মাণ করার জন্য, অনেক মনোবিজ্ঞানী ইতিবাচক বিবৃতি ব্যবহার করা সহায়ক বলে মনে করেন। এই বিবৃতিগুলির উদ্দেশ্য হল আপনার মধ্যে থাকা ভাল গুণাবলীর কথা মনে করিয়ে দেওয়া এবং কষ্টকর পরিস্থিতিতে আপনাকে শক্তি, সাহস এবং স্থিতিস্থাপকতা দেবে। .......
বিস্তারিত

অলিগোহাইড্রামনিওস (Oligohydramnios) (এমনায়োটিক তরলের স্বল্পতা)

ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা),Consultant Sonologist
অলিগোহাইড্রামনিওস হল একটি বিশেষ কন্ডিশন যেখানে গর্ভাবস্থায় আপনার বেবির চার দিকে থাকা অ্যামনিয়োটিক তরলের পরিমাণ অনেক কমে যায়, এতে মা ও শিশু উভয়ে বিভিন্ন জটিলতার সম্মুখীন হওয়ায় সম্ভাবনা থাকে।......
বিস্তারিত

মহিলাদের ইনফার্টিলিটি দূর করার ক্ষেত্রে ডিম্বাণুর গুণাগুণ কেন গুরুত্বপূর্ণ?


ডাঃ হাসনা হোসেন আখী,এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য),এমএস (অবস এন্ড গাইনী)

ব্রেস্ট ফিডিং মায়েদের ডায়েট কেমন হওয়া উচিত?


নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,Bsc (Hon's) Msc (food & Nutrition)

লিম্ফোমাঃ রক্তের বিশেষ একপ্রকারের ক্যান্সার


ডাঃ গুলজার হোসেন ,বিশেষজ্ঞ হেমাটোলজিস্ট

ব্যস্ত জীবনে সুস্থ থাকতে ছোট ছোট পরিবর্তন আনুন


পুষ্টিবিদ মুনিয়া মৌরিন মুমু

ব্রেস্ট ক্যান্সার প্রতিরোধে যে পদক্ষেপটি সবার জন্য জরুরি


ডাঃ লায়লা শিরিন

কেন হাঁটবেন? কিভাবে হাঁটবেন ? কতটুকু হাঁটবেন?


ডা: অনির্বাণ মোদক পূজন।হৃদরোগ, বাতজ্বর ও উচ্চ রক্তচাপ রোগ বিশেষজ্ঞ

রুট ক্যানাল ( দাতেঁর ব্যথার) চিকিৎসা কি? কখন করাতে হয়?


ডা: এস.এম.ছাদিক,বি ডি এস (ডি ইউ),এম পি এইচ (অন কোর্স)

প্রেগ্ন্যান্সিতে 3D/4D আল্ট্রাসনোগ্রাম কখন কেন করাবেন।


ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা) ,,Consultant Sonologist

সম্পর্কের ক্ষেত্রে যৌনস্বাস্থ্যের গুরুত্বপূর্ণতা


ডা. ফাতেমা জোহরা

সত্যিই কি প্লাস্টিকের ডিম আর চালের অস্তিত্ব আছে?


পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন।

ডেংগি ও প্লেইটলেট(ডেংগু নিয়ে কিছু ভ্রান্ত আতঙ্ক)


ডাঃ গুলজার হোসেন

দাঁতের যত্নে গুরুত্বপূর্ণ ৮ টি টিপস


ডাঃ তারিকুল সরকার (তারেক)

মনের যত্ন


জিয়ানুর কবির

করোনায় ফুসফুস কে ভালো রাখবেন কি করে?


পুষ্টিবিদ জয়তী মুখার্জী

ত্বকের উজ্জ্বলতায় কিশমিশ


পুষ্টিবিদ মুনিয়া মৌরিন মুমু

মূত্রতন্ত্রের পাথর (urinary stone) (উপসর্গ, চিকিৎসা ও প্রতিকার)


ডাঃ মোহাম্মদ ইব্রাহিম আলী

শিশুদের জন্য ব্যায়াম কখন প্রয়োজন?


নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী

অফিসে পৌঁছে ক্ষুধা পেলে কি খাবো ?


পুষ্টিবিদ মুনিয়া মৌরিন মুমু

গর্ভবতী মহিলা কি কোভিড টীকা নিতে পারবেন ?


ডাঃ হাসনা হোসেন আখী,এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য),এমএস (অবস এন্ড গাইনী)

সম্পর্কের ক্ষেত্রে যৌনস্বাস্থ্যের গুরুত্বপূর্ণতা


ডা. ফাতেমা জোহরা

সত্যিই কি প্লাস্টিকের ডিম আর চালের অস্তিত্ব আছে?


পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন।

ডেংগি ও প্লেইটলেট(ডেংগু নিয়ে কিছু ভ্রান্ত আতঙ্ক)


ডাঃ গুলজার হোসেন

দাঁতের যত্নে গুরুত্বপূর্ণ ৮ টি টিপস


ডাঃ তারিকুল সরকার (তারেক)

মনের যত্ন


জিয়ানুর কবির