Royalbangla
রয়াল বাংলা ডেস্ক
রয়াল বাংলা ডেস্ক

দ্রুত গর্ভবতী হওয়ার উপায়

মা

প্রতিটি দম্পতির জীবনে সন্তান গ্রহণ একটি আকাঙ্ক্ষিত বিষয়। যারা দ্রুত সন্তান নিতে চান তাদের জন্য কিছু গুরুত্বপুর্ণ পরামর্শ। খেয়াল রাখবেন স্বামী ও স্ত্রী উভয়ের প্রজনন স্বাস্থ্যের গুরুত্ব রয়েছে । তাই উভয়কে প্রস্তুত হতে হবে।

  1. জন্ম নিরোধক বর্জন :
    সবার আগে সর্ব প্রকার জন্ম নিরোধক ঔষধ সেবন বন্ধ করতে হবে।
  2. মিলনের উপযুক্ত সময় নির্ধারণ :
    ডিম্বানু তৈরি হওয়ার পর 3 দিন খুব গুরুত্বপূর্ণ। এ সময়টি নির্ধারণ করাই সবচেয়ে কঠিন। ছবির চার্টটি ভাল করে অনুসরন করুন । আশা করি এটি বেশ সহায়ক হবে। যাদের মাসিক অনিয়মিত তাদের ক্ষেত্রে একটু কম কাজ করলেও অন্যদের ক্ষেত্রে এই চার্টটি বেশ কার্যকর। খেয়াল করৃন ডিম্নানু গঠিত হওয়া বা সবচেয়ে ফার্টাইল পিরিয়ড এসব হিসেব করতে হবে মাসিক হবার শুরুর দিন থেকে ।
  3. হালকা অনুশীলন :
    দম্পতির কারও বা উভয়ের অতিরিক্ত ওজন থাকলে তা কমিয়ে গ্রহণযোগ্য মাত্রায় নিয়ে আসতে হবে। তাছাড়া অনুশীলন শরীরের মেটাবলিজম বাড়ায় যা দম্পতির প্রজননশীলতা স্বাভাবিক করার জন্য প্রয়োজন।
  4. সুষম খাবার গ্রহণ :
    গর্ভবতী হওয়ার পরে নয় বরং আগে থেকে সুষম খাবার গ্রহণের বিকল্প নেই। বিশেষ করে শিশুর স্নায়বিক বিকাশের জন্য গর্ভবতী মায়ের শরীরে সব ধরনের ভিটামিন ও মিনারেল ভারসাম্যপূর্ণ ভাবে থাকা দরকার।
  5. প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ ধুমপান ও মদ্যপান বর্জন :
    প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ ধুমপান ও মদ্যপান প্র্রজনন স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক হুমকি। তাই এই ধরনের নেশা অবশ্য বর্জনীয়।
  6. চাপমুক্ত থাকা :
    দম্পতিকে চাপ ও টেনশনমুক্ত থাকতে হবে। কোন রকম তড়িঘড়ি বা দুশ্চিন্তা করা যাবে না। সময়ে অসময়ে যেন মন খারাপ না হয় সেদিকে খেয়াল করা দরকার। মানসিক সুস্থতা একটি পূবশর্ত।
  7. রোমান্টিক সময় কাটানো :
    দৈনন্দিন জীবনের একঘেয়েমি কাটানোর জন্য একটু কিছুদিনের জন্য বেড়িয়েও আসতে পারেন। এসব কিছু দাম্পত্য জীবনের আনন্দ বাড়ায় এবং স্বাভাবিক গর্ভধারনকে সহজ করে তোলে।
  8. এক বা দুইবারের ব্যর্থতায় হতাশ না হওয়া :
    এক বা দুইবারের ব্যর্থতায় হতাশ হবেন না। গর্ভধারনের বিষয়টি খুবই সম্ভাবনা নির্ভর । স্বাভাবিক চেষ্টায় 6 মাস থেকে এক বছর সময় লাগতে পারে ।
  9. এক বছর অতিক্রান্ত হলে :
    এক বছর অতিক্রান্ত হলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ঔষধ সেবন করতে পারেন। অথবা 6 বা 8 মাস পরেও ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে পারেন। মুলকথা হলো ঔষধ সেবন না করে স্বাভাবিক উপায়ে গর্ভধারনের চেষ্টা করা উত্তম। স্বাভাবিক উপায়ে গর্ভধারনের পর্যাপ্ত চেষ্টা ব্যর্থ হলে ঔষধ অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শে সেবন করতে হবে।
  1. royalbangla.com এ আপনার লেখা বা মতামত বা পরামর্শ পাঠাতে পারেন এই এ‌্যড্রেসে royal_bangla@yahoo.com
পরবর্তী পোস্ট

জেনে নিন থাইরয়েড সমস্যায় ওষুধ খাওয়ার সঠিক নিয়ম


.

দ্রুত গর্ভবতী হওয়ার উপায়


রয়াল বাংলা ডেস্ক
.

গর্ভকালীন ডায়াবেটিস কি?


ডা. মোঃ মাজহারুল হক তানিম
.

পুরুষের বন্ধ্যাত্বের সমস্যা কেন বাড়ছে ?


ডাঃ আয়েশা রাইসুল
.

হরমোন ও বন্ধ্যাত্ব!


ডা. মো মাজহারুল হক তানিম
.

প্রেগন্যন্সিতে বর্জনীয় খাবার অর্থাৎ যে খাবার গুলো গর্ভস্থ শিশুর জন্য বর্জন করতে হবে


নিউট্রিশনিস্ট সাদিয়া স্মৃতি
.

গর্ভকালীন কোষ্ঠকাঠিন্য


Dr Md Ashek Mahmud Ferdaus
.

গর্ভকালীন কোষ্ঠকাঠিন্য কেন হয়? এবং মুক্তির উপায় কী ?


ডাঃ মোঃ আশেক মাহমুদ ফেরদৌস
.

হতাশা, মানসিক অসুস্থতার সাথে গর্ভকালীন ডায়বেটিসের সম্পর্ক ও আমাদের করণীয়


ডা. ফাতেমা জোহরা
.

আসুন প্রসবোত্তর বিষন্নতা (Postpartum Depression) সম্বন্ধে জানি


জিয়ানুর কবির
.

যৌনজীবনে পুরুষের একান্ত দুর্বলতার লক্ষণ, কারণ ও প্রতিকার


ডাঃ আয়েশা রাইসুল (গভঃ রেজিঃ H-১৫৯৮)

আক্কেল দাঁত কখন এবং কেন ফেলতে হয়?

ডা: এস.এম.ছাদিক,ওরাল এন্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারী
সাধারণত আক্কেল দাঁত সম্পূর্ণভাবে উঠার সময় হলো ১৭-২৫ বছর বয়স । কিন্তু ১৭-২০ বছর বয়সের মধ্যেই বুঝা যায় আক্কেল দাঁত সঠিকভাবে উঠবে কি না।....
বিস্তারিত

শালগম এর উপকারীতা

পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন,পুষ্টি কর্মকর্তা
শালগম অত্যন্ত পুষ্টিকর খাদ্য হিসেবে সুপরিচিত। ভিটামিন এ, সি এবং ভিটামিন কে তে ভরপুর থাকে শালগম। শালগমের সবচাইতে ভালো দিক হচ্ছে এদের ক্যালরি খুব কম থাকে। নিয়মিত শালগম খাওয়ার কিছু কারণ সম্পর্কে জেনে নিই চলুন।........
বিস্তারিত

সাইনাস আর সাইনুসাইটিস, আসুন সহজে বুঝে নিই.

ডা: এস.এম.ছাদিক,ওরাল এন্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারী
স্বাভাবিক নিশ্বাস নিতে মনে হয় নাকে কি যেনো আটকে আছে,, আবার নাক দিয়ে পানিও পড়ে। গায়ে হালকা জ্বর ও আছে, আবার সাথে মাথা ব্যাথা। তিনি ডাক্তারের কাছে গেলেন, ডাক্তার বললেন, আপনার সাইনুসাইটিস হয়েছে,........
বিস্তারিত

গর্ভাবস্থায় কি চা-কফি পান করা যায়?

ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা) ,Consultant Sonologist
চা ও কফি আপনাদের অনেকেরই প্রছন্দের পানীয়। তাই গর্ভাবস্থায়ও খেতে চান, তাই না? এ ক্ষেত্রে আমাদের জানা উচিত এই পানীয় পান করা যাবে কি না, গেলে কতটুকু করা যাবে।......
বিস্তারিত

বাচ্চাদের ফল ও সবজি খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলবেন কিভাবে?


পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন।বিএসসি (সম্মান), এমএসসি (প্রথম শ্রেণী) (ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি)

মহিলাদের ইনফার্টিলিটি দূর করার ক্ষেত্রে ডিম্বাণুর গুণাগুণ কেন গুরুত্বপূর্ণ?


ডাঃ হাসনা হোসেন আখী,এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য),এমএস (অবস এন্ড গাইনী)

কিডনী সিস্ট কতটা ঝুঁকিপূর্ণ ?


ডাঃ মোহাম্মদ ইব্রাহিম আলী,এম.বি.এস,বিসিএস (স্বাস্থ্য) ,এমএস (ইউরোলজি)

শিশুদের ডায়েট কেমন হওয়া উচিত ?


নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,Bsc (Hon's) Msc (food & Nutrition)

লিভারের সুস্থতায় কি করবেন?


নুসরাত জাহান, ডায়েট কনসালটেন্ট

অনিয়মিত পিরিয়ডের কারণ , চিকিৎসা ও ঘরোয়া প্রতিকার


ডাঃ হাসনা হোসেন আখী