Royalbangla
নুসরাত জাহান, ডায়েট কন্সালটেন্ট
নুসরাত জাহান, ডায়েট কন্সালটেন্ট

জেনে নিন আপনি যে অভ্যাসগুলোর কারণে কিডনি রোগে আক্রান্ত হতে পারেন

স্বাস্থ্য টিপস

কথায় আছে প্রতিষেধকের চেয়ে প্রতিরোধই উত্তম। বিশেষ করে কিডনি রোগ যদি প্রাথমিকভাবে ধরা পড়ে তাহলে খাদ্যাভ্যাস ও জীবনধারন মেনে চললে কিডনিকে স্বাভাবিক অবস্থায় নিয়ে আসা সম্ভব। এবিষয়ে একজন ডায়েটিশিয়ানের পরামর্শ কিডনির সুস্থতায় দারুন ভুমিকা পালন করতে পারে। কিডনি ফাউন্ডেশনের তথ্যানুযায়ী, বাংলাদেশে প্রায় ২ কোটি মানুষ কিডনি রোগে ভুগছেন। এর মধ্যে ৪০ হাজারেরও বেশি মানুষের কিডনি প্রতিবছরই অকেজো হয়ে যাচ্ছে। আরও খারাপ খবর কিডনী রোগ যদি জটিল আকার ধারণ করে তাহলে এর চিকিৎসা ব্যয় অনেক বেশি।

যে অভ্যাসগুলো কিডনি রোগের জন্য দায়ী:

প্রস্রাব ধরে রাখা

কিডনি বিকল হওয়ার কারণগুলোর অন্যতম হলো প্রস্রাব ধরে রাখা। প্রস্রাব ধরে রাখলে তা কিডনির উপর চাপ সৃষ্টি করে। দীর্ঘমেয়াদী প্রস্রাব ধরে রাখার অভ্যাস কিডনিকে ক্ষতিগ্রস্থ করে।

পর্যাপ্ত পানি পান না করা:

দৈনিক যতটুকু পানি পান করা দরকার ততটুকু না করলে কিডনি ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে। কিডনির প্রধান কাজ শরীর থেকে বর্জ্য বের করা। কিন্তু পর্যাপ্ত পানি না করলে রক্তে দূষিত পদার্থ জমা হতে থাকে কিডনি যা ছাকতে পারে না।

ডায়বেটিস কিডনি রোগের অন্যতম কারণ:

পর্যাপ্ত পানি পান না করলে,,,গবেষণায় দেখা গেছে,, কিডনি বিকল হওয়ার অন্যতম কারণ ডায়বেটিস। যাদের ডায়বেটিস অনেক বেশি তারা প্রাথমিক অবস্থায় কিডনি বিকল হওয়ার বিষয়টি টের পান না। ডায়বেটিস রোগীরা খেয়াল করুন শ্বাসকষ্ট হচ্ছে কিনা , বা ঘন ঘন পেশাব , রক্তশূন্যতা,অরুচি,মুখ ও শরীর ফুলে যাওয়া,শরীরে পানি জমা ও স্মৃতিশক্তির মত কোন সমস্যা।

উচ্চ রক্তচাপ:

উচ্চ রক্তচাপ হতে পারে কিডনি রোগের আরেকটি কারণ। উচ্চ রক্তচাপ হৃদপিন্ড ও দেহের রক্তনালীর ক্ষতি করে । এতে কিডনির রক্তনালী ক্ষতিগ্রস্থ হয়। যাদের উচ্চ রক্তচাপ আছে তাদের কিডনি বিকল হতে ১০ থেকে ১৫ বছর লাগে। তবে অনিয়ন্ত্রিত রক্তচাপ খুব বেশি থাকলে কয়েক সপ্তাহ বা মাসের মধ্যেও কিডনি বিকল হতে পারে।

অতিরিক্ত শারীরিক শ্রম:

আপনি যখন অতিরিক্ত শারিরীক পরিশ্রম করেন তখন আপনার পেশি ভেঙে যায়। ঐ ভেঙে যাওয়া পেশিগুলো রক্তের সাথে কিডনিতে প্রবাহিত হয়। কিডনি ঐ প্রবাহকে ছাকতে পারে না। ফলে কিডনির ক্ষতি হয়।

কিডনি নষ্ট হওয়ার কারণ

বেশি বেশি প্রোটিন খাওয়া:

অতিরিক্ত প্রোটিন জাতীয় খাবার কিডনির ক্ষতির কারণ হতে পারে। খাদ্য তালিকায় অতিরিক্ত প্রোটিন কিডনির ক্ষতি করে ।

বেশি বেশি লবণ খাওয়া:

অতিরিক্ত লবণ বা সোডিয়াম কিডনি রোগের আরেকটি কারণ । আমরা যখন অতিরিক্ত লবণ খাই এই সোডিয়াম প্রক্রিয়াজাত করা নিয়ে কিডনিকে অনেক বেশি ব্যস্ত থাকতে হয় এতে কিডনির উপর প্রবল চাপ পরে। একজন মানুষের দৈনিক ৫.৮ গ্রামের বেশি লবণ খাওয়া উচিত নয়।

কোমল পানীয়তে ক্ষতি:

কোমল পানীয় আমাদের দৈনন্দিন খাদ্যাভ্যাসের অংশ হয়ে গিয়েছে। কিন্তু এসব পানীয়ের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ক্যাফেইন মেশানো থাকে। অতিরিক্ত ক্যাফেইন শরীরে রক্তচাপ বাড়িয়ে দিতে পারে। অতিরিক্ত রক্তচাপ কিডনির উপরও চাপ প্রয়োগ করে এবং কিডনি ক্ষতিগ্রস্থ হয়।

ব্যথানাশক ঔষধ খাওয়া:

সামান্য কোন ব্যথায় যারা ব্যথানাশক ঔষধ খাচ্ছেন তাদের জন্য খারাপ খবর। কিডনিসহ নানা অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের জন্য ব্যথানাশক ঔষধ ক্ষতিকর। গবেষণায় দেখা গেছে,দীঘদিন ধরে ব্যথানাশক ঔষধের উপর নির্ভরতা কিডনির কার্যক্ষমতা হ্রাস করে।

ধূমপানে আসক্তি:

যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের মতে, ধুমপান কিডনিসহ শরীরের সব অঙ্গের জন্য ক্ষতিকর। এছাড়া বিভিন্ন গবেষণাতে ধূমপানের সাথে কিডনির ক্ষতির সম্পর্ক দেখানো হয়েছে।

কম ঘুমানো:

কম ঘুম কিডনি রোগের আরেকটি কারণ। রাতের ঘুম আপনার কিডনি ভাল রাখার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এক গবেষণায় দেখা যায়, দীঘদিন একটু পরপর ঘুম ভাঙার সমস্যাও কিডনি রোগের কারণ। রাতে কিডনির টিস্যু তৈরি হয়, তাই রাতের ঘুমের বিঘ্ন ঘটলে তা কিডনির ক্ষতির কারণ হতে পারে ।

চিকিৎসায় দেরি করা:

কারো যদি ডায়বেটিস,উচ্চ রক্তচাপ,স্থুলতা অথবা পরিবারের কেউ যদি কিডনি রোগে আক্রান্ত থাকার ইতিহাস থাকে তাহলে তার নিয়মিতই কিডনি পরীক্ষার প্রয়োজন। কারণ কিডনি ক্ষতিগ্রস্থ হলে এটার চিকিৎসায় দেরী করলে ক্ষতির পরিমাণ আরো বেড়ে যেতে পারে।

ধন্যবাদ
নুসরাত জাহান
Nutrition and Diet Consultant
ইবনে সিনা ডায়াগনোস্টিক এন্ড কনসালটেশন সেন্টার, কেরাণীগন্জ
মোবাইল: ০১৭৩০-৫৯৯১৭১-২
সালাউদ্দিন স্পেশালাইজড হসপিটাল,ওয়ারী
মোবাইল:০১৭১৮-০৪৬০৯৮
অনলাইন কাউন্সিলিং ০১৮৭-২৪৩৪৪৮১
প্রয়োজনে ক্লিক করুন নিচের ফেসবুক পেজে
www.facebook.com/trust.a.dietitian

  1. royalbangla.com এ আপনার লেখা বা মতামত বা পরামর্শ পাঠাতে পারেন এই এ‌্যড্রেসে royal_bangla@yahoo.com
পরবর্তী পোস্ট

রাইনোপ্লাস্টি (Rhinoplasty) নাকের সৌন্দর্য বর্ধনের সার্জারি।


.

কিডনির সুস্থতায় খাদ‌্য ব‌্যবস্থাপনা


পুষ্টিবিদ সিরাজাম মুনিরা
.

জেনে নিন আপনি যে অভ্যাসগুলোর কারণে কিডনি রোগে আক্রান্ত হতে পারেন


নুসরাত জাহান, ডায়েট কন্সালটেন্ট
.

কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিরোধের উপায়


ডাঃ মোহাম্মদ ইব্রাহিম আলী
.

মূত্রতন্ত্রের পাথর (urinary stone) (উপসর্গ, চিকিৎসা ও প্রতিকার)


ডাঃ মোহাম্মদ ইব্রাহিম আলী
.

কিডনী সিস্ট কতটা ঝুঁকিপূর্ণ ?


ডাঃ মোহাম্মদ ইব্রাহিম আলী,এম.বি.এস,বিসিএস (স্বাস্থ্য) ,এমএস (ইউরোলজি)
.

ইউরিক এসিড জনিত সমস্যায় কি করণীয় জেনে নিন


ডা: অনির্বাণ মোদক পূজন,হৃদরোগ, বাতজ্বর ও উচ্চ রক্তচাপ রোগ বিশেষজ্ঞ
.

'মাছ নাকি মাংস, কোনটা বেশি খাবো এবং কেন'


পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন,পুষ্টি কর্মকর্তা
.

সাধারণ মুলার অসাধারণ গুনাবলী


পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন,পুষ্টি কর্মকর্তা
.

হাত- পা জ্বালাপোড়া


ডা. মুহম্মদ মুহিদুল ইসলাম,সায়েন্টিফিক অফিসার
.

ডাব


পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন,পুষ্টি কর্মকর্তা

গর্ভাবস্থায় ঝুকি

পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন,পুষ্টি কর্মকর্তা
প্রতিটি মেয়ের বুকের মাঝে লালিত স্বপ্নগুলোর মাঝে অন্যতম একটি স্বপ্ন হচ্ছে মা হওয়া। সুস্থ্য স্বাভাবিক মাতৃত্ব আমাদের সবার কাম্য। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু জটিলতা দেখা দেয় যা.....
বিস্তারিত

এনোমালি স্ক্যানে সমস্যা ধরা পড়লে করণীয় কি?

ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা),Consultant Sonologist
এনোমালি স্ক্যানের মাধ্যমে অধিকাংশ মেজর জন্মগত ত্রুটি ধরা পড়ার কথা যদি ভাল মেশিন ও দক্ষ সনোলজিস্ট দিয়ে করানো হয়। ধরুন কারো এনোমালি স্ক্যানের রিপোর্টে.....
বিস্তারিত

পুরুষ বন্ধ্যাত্ব, প্রয়োজন চিকিৎসার

ডাঃ হাসনা হোসেন আখী,এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য),এমএস (অবস এন্ড গাইনী)
কোভিড আবহে দীর্ঘদিন গৃহবন্দি থাকার সময় বিশেষজ্ঞরা মনে করেছিল যে সন্তান উৎপাদনের হার বৃদ্ধি পাবে । কিন্তু হিসাব অনুযায়ী দেশে সন্তানহীন দম্পতির সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে।....
বিস্তারিত

ডালিম বা বেদানায় কতখানি আয়রন?

ডাঃ গুলজার হোসেন ,বিশেষজ্ঞ হেমাটোলজিস্ট
বেদানার রঙ লাল দেখে অনেকেই ভাবেন রক্ত বুঝি এখানেই। বাস্তবতা হলো বেদানায় আয়রন আছে ঠিকই কিন্তু সেটা আয়রনের বেস্ট সোর্স নয়। একশ গ্রাম বেদানায় আয়রন থাকে ০.৩ মিলি গ্রাম।......
বিস্তারিত

সুস্থতায় নিয়মানুবর্তিতা: যেসব নিয়ম মেনে চললে দীর্ঘদিন সুস্থ থাকা যায়


পুষ্টিবিদ মুনিয়া মৌরিন মুমু

বাচ্চার আদর্শ খাদ্যাভ্যাস গড়ে তুলতে যা করা উচিত এবং যা করা উচিত নয়


নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,Bsc (Hon's) Msc (food & Nutrition)

ব্রেস্ট ফিডিং মায়েদের ডায়েট কেমন হওয়া উচিত?


নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,Bsc (Hon's) Msc (food & Nutrition)

লিম্ফোমাঃ রক্তের বিশেষ একপ্রকারের ক্যান্সার


ডাঃ গুলজার হোসেন ,বিশেষজ্ঞ হেমাটোলজিস্ট

রক্তের অসুখ পলিসাইথেমিয়া


ডাঃ গুলজার হোসেন ,বিশেষজ্ঞ হেমাটোলজিস্ট

ভ্যারিকোসিল কি? কাদের হয়? কি করণীয়?


ডাঃ মোঃ মাজেদুল ইসলাম,এমবিবিএস, এফসিপিএস (সার্জারি),জেনারেল, কোলোরেক্টাল এবং ল্যাপারোস্কোপিক সার্জন।