Royalbangla
নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,Bsc (Hon
নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,Bsc (Hon's) Msc (food & Nutrition)

বাচ্চার আদর্শ খাদ্যাভ্যাস গড়ে তুলতে যা করা উচিত এবং যা করা উচিত নয়

টিপস

আপনার শিশু সন্তান কি খাচ্ছে তার দায় কেবল আপনার ই! বাবা মা দুইজন যতো ব্যস্ত ই থাকেন না কেনো জানতে হবে আপনার কিচেনে আজ কি রান্না হচ্ছে!!! বাহিরের লোক দিয়ে রান্না করালেও ডিরেকশণ টা নিশ্চয়ই আপনাদের কাছ থেকেই আসবে!!

বাবা প্রতিমাসে বা সপ্তাহে বাজারের সময় খেয়াল রাখবেন প্রয়োজনীয় পুষ্টিকর উপাদান গুলো সারা সপ্তাহের বাজারে থাকলো কিনা!!৫ ভাগে বাজার করলে ৩ ভাগে শাক সব্জি ১ ভাগে মাছ / মাংস আর ১ ভাগে ফলমূল আছে কিনা নিশ্চিত করুন। কষ্ট করে উপার্জন এর টাকায় আপনার শিশু সন্তান কে দেশীয় ফল দিন। অফিস শেষে চকলেট, চিপস না দিয়ে পছন্দের ফল, খেলনা, সুন্দর রঙ পেন্সিল এনে দিন যা দিন শেষে তার কাজে লাগবো!

কালো কোক দিয়ে আপনার সন্তানের পাকস্থলি টা পচিয়ে দিয়েন না। দাতের এনামেল গুলা নষ্ট করবেন না!!

চকলেট আর কেক দিয়ে দিয়ে ওর ব্রেইন কে আরো হাইপার এক্টিভ করে দিবেন না!!! খেলার মাঠ নেই আমাদের যে দুই/ তিন ঘন্টা ফুটবল খেলে এনার্জি বার্ন করতে পারবে ওরা!!! ওদের কে বাজে খাবারের সাথে পরিচয় করিয়ে দেই আমরা!! অতিথি আসলে তাদের কে সোজাসুজি বলে দিবেন কোক চকলেট না এনে দেশীয় ফল, বিভিন্ন রকমের বাদাম, দুধ, ডিম এগুলা আনতে!! আপনি নিজেও এই খাবার গুলো বাছাই করুন নিয়ে যাওয়ার জন্য। মিষ্টির চেয়ে দই ভালো প্রো বায়োটিক আছে খাবার হজম করতে সাহায্য করবে। ভালো দই নিয়ে যান।

সপ্তাহে ১ দিন নতুন খাবার রান্না করুন। সবাই মিলে বানান বাচ্চাকেও সাথে রাখুন ছোট বাচ্চা হলেও রাখুন সাথে। দেখান কি আন্নদ করে মজা করে খাবার বানানো যায়। সেই খাবার নিয়ে সবাই প্লেট এ করে নিচে বসে পড়ুন হাসা হাসি করে খান, আপনার যে সন্তান খেতে পছন্দ করে না বা একদ্ম ছোট শিশু হাত দিয়ে নিজে খেতে পছন্দ করে না তাকেও বসান। খাবার সামনে দিন। খেতে বলবেন না প্রথম কয়েকদিন কি করে দেখেন। এরপর পাতে অল্প অল্প করে দিন। দেখবেন সবাইকে দেখে আগ্রহ নিয়ে এক সময় বসবে এবং খাবে।

অনেকে আছেন বাচ্চা হয়ত একটু আগেই খেয়েছে কিন্ত নিজে কিছু খাচ্ছেন অই সময়ে বাচ্চার মুখে দিয়ে আসেন. এতে বাচ্চা বিরক্ত হয়। এগুলাও করবেন না আমাদের শরীর একটা বায়োলজিক্যাল ঘড়ি। সেই ঘড়ি সময় মতো নিজেকে সেট করে নেয়। সময়ে অসময়ে মুখে খাবার গুজে দিলে এক সময় খাবারের উপর অভুক্তি আসবে। সময় দিন ক্ষুধা লাগার। বলুক খাবার খাবে। খাবার লাগবে এটা বুঝতেও সময় দিতে হয়। ক্ষুধা লাগ্লে ব্রেইন অটো সিগন্যাল দিবে খাবার খুজবে। সময় দিন ধৈর্য্য রাখুন।

আমাদের চারপাশের এই অসুস্থ পরিবেশে একটা সন্তানকে সুস্থ ভাবে গড়ে তোলা এখন বিরাট একটা চ্যালেঞ্জ হলেও আমরা তাদের কে মৃত্যুর মুখে নিশ্চয় ই ঠেলে দিতে পারি না!! আমরা আমাদের জায়গা থেকে চেষ্টা জারি রাখবো!! আমার সন্তান কি খাচ্ছে কি করছে তাকে গাইড করতে মা বাবার ভূমিকাই প্রধান ও অপরিসীম!!!

এই লেখকের সব লেখা পড়ুন নিচের লিংক থেকে।
www.royalbangla.com/নিউট্রিশনিস্ট-সুমাইয়া-সিরাজী-102934114426153

লেখক
নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী
Bsc (Hon's) Msc (food & Nutrition)
CND (BIRDEM), CCND (BADN)
Trained on Special Child Nutrition
Consultant Dietitian (Ex)
Samorita Hospital
Mobile:
01750-765578,017678-377442
লেখকের সাথে যোগাযোগ করতে নিচের ফেসবুক পেইজে ক্লিক করুন
www.facebook.com/নিউট্রিশনিস্ট-সুমাইয়া-সিরাজী-102934114426153

  1. royalbangla.com এ আপনার লেখা বা মতামত বা পরামর্শ পাঠাতে পারেন এই এ‌্যড্রেসে royal_bangla@yahoo.com
পরবর্তী পোস্ট

অতিরিক্ত চিনি খেয়ে স্বাস্থ্যের ক্ষতি করছেন না তো???


কমসময়ে ঘরে তৈরি রেস্তোরাঁ স্টাইলে ছোট মাছের চচ্চড়ি

পুষ্টিবিদ মুনিয়া মৌরিন মুমু
সামান্য তেলে অল্প আঁচে মাছ ১-২ মিনিট ভেজে উঠিয়ে নিতে হবে। পরবর্তীতে ফ্রাই প্যানে তেল দিয়ে একে একে পেয়াজ কুঁচি, কাঁচা মরিচ, হলুদ এবং লবণ দিয়ে কিছুক্ষণ ভেজে নিতে হবে৷ এরপরে মাছ দিয়ে আরও কিছুটা সময় ভেজে চুলা বন্ধ করে ধনিয়াপাতা দিয়ে মিশিয়ে নিলেই খুব অল্প সময়ে তৈরি হয়ে যাবে স্বাস্থ্যকর কাচকি মাছের চচ্চড়ি।.....
বিস্তারিত

শিঙাড়া কি আসলেই খারাপ?

পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন,পুষ্টি কর্মকর্তা
মানুষ খাদ্যে বৈচিত্র্য আনতে খুব পছন্দ করে। একই উপাদানের ভিন্ন ভিন্ন খাবার খেতেও পছন্দ করে। এর মধ্যে হয়তো কিছু খাবার স্বাস্থ্যসম্মত হয়, কিছু খাবার হয় না। আবার কোনো খাবার এতই জনপ্রিয় যে .....
বিস্তারিত

দাম্পত্য জীবন সুখি করবেন কিভাবে??

জিয়ানুর কবির,ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিষ্ট
বর্তমানে প্রাকটিসে প্রায় দম্পতিরা সমস্যা নিয়ে আসেন। কোন সময় একজন এসে তার সঙ্গীর সমস্যা বলতে থাকেন। আবার কখনো দুজনই একসাথে আসেন।.....
বিস্তারিত

খালিপেটে নাকি ভরাপেটে খাবেন ঔষধ!!

ডা. মুহম্মদ মুহিদুল ইসলাম,সায়েন্টিফিক অফিসার
আজকাল অনেক চিকিৎসক ই আছেন রোগী কে সুন্দর করে প্রেস্ক্রিপশন বুঝিয়ে বলে দেন।এতে রোগী যেমন রোগ সম্পর্কে সচেতন হয় তেমনি ঔষধ গুলো বুঝে নিলে চিকিৎসক এর নির্দেশনা মেনে খেতে পারে।....
বিস্তারিত