loading...









loading...

Royalbangla
Dietitian Shirajam Munira
Dietitian Shirajam Munira

সিজনাল ঠান্ডা নিয়ন্ত্রণের উপায় কি ?

পুষ্টি


  1. আমি সবসময় বলি রোগ হওয়ার আগে সাবধান থাকতে।এখন সময় ভালো না,ঠান্ডা জ্বর কাশি মানেই করোনার কথা মাথায় আসে।তবে ঘাবড়াবেন না।ভয় ও স্ট্রেস মানুষকে দূর্বল করে দেয়।তাই মনকে আগে শক্ত রাখা জরুরী।
    আমি আজ সর্দি কাশি ঠান্ডার উপশম নিয়ে আলোচনা করবো ও একই সাথে পূর্ব প্রস্তুতি কী নেয়া যেতে পারে তা ব্যাখ্যা করবো।
    চলুন জেনে নেয়া যাক কী খেতে হবে ও কী করতে হবে?
  2. এক
    মধু
    ব্যাকটিরিয়া সংক্রমণের কারণে গলা ব্যথা হতে পারে।মধু অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল সমৃদ্ধ যা এই ধরণের সংক্রমণ পরিষ্কার করতে সহায়তা করে।বাচ্চাদের কাশি চিকিৎসায় মধু কার্যকর।যদিও ১২ মাসের কম বয়সী শিশুদের দেওয়া উচিত নয়।
    গবেষকরা আবিষ্কার করেছেন যে মধু ডিফিনহাইড্রামাইন এবং সালবুটামলের চেয়ে বেশি কার্যকর যা প্রায়শই কাশির ওষুধে ব্যবহৃত ড্রাগ হিসেবে।তাই সর্দি কাশি ঠান্ডাতে মধু কিন্তু দারুণ উপকারী।
  3. দুই
    আদা
    একজন ব্যক্তি যদি এক কাপ গরম পানিতে ১-২ চা চামচ তাজা আদা দিয়ে সাথে অল্প মধু দিয়ে খেতে পারেন তবে ঠান্ডা অনেকাংশে কমে যাওয়া সম্ভব।কারন আদাতে থাকা জিঞ্জারেল এবং শাওগেল নামক উপাদান রাইনোভাইরাস ধ্বংস করতে সহায়তা করে। এর ফলে ঠান্ডা লাগার ঝুঁকি কমে যায়। তাই সুস্থ্য থাকতে খাদ্য তালিকায় আদা যোগ করা ভালো।
  4. তিন
    ডাবের পানি
    ডাবের পানিতে সোডিয়াম এবং পটাসিয়ামের মতো খনিজ অনেক বেশি।এগুলি ডায়রিয়া বা বমি বমিভাবের পরে শরীরকে দ্রুত পুনরায় হাইড্রেট করতে সহায়তা করতে পারে।একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে যে ডাবের পানি একটি স্পোর্টস ড্রিঙ্কের মতো একই স্তরের হাইড্রেশন সরবরাহ করতে পারে।এটি আরও স্বাস্থ্যকর, এতে কোনও চিনি যুক্ত নেই।তাই ঠান্ডার সাথে পেট খারাপ হলে ডাবের পানি খেতেই পারেন।
  5. চার
    চিকেন স্যুপ
    মুরগির স্যুপকে কয়েকশ বছর ধরে সাধারণ ঠাণ্ডার প্রতিকার হিসাবে সুপারিশ করা হয়।এটি ভিটামিন, খনিজ, ক্যালোরি এবং প্রোটিনের খাওয়ার একটি সহজ উৎস যা আপনি অসুস্থ থাকাকালীন আপনার দেহের প্রচুর পরিমাণে পুষ্টির যোগান দেয়।মুরগির স্যুপ তরল এবং ইলেক্ট্রোলাইটের একটি দুর্দান্ত উৎস,ঠান্ডায় পেট খারাপ হলে শরীরের পানিশুন্যতা রোধে সাহায্য করে।একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে মুরগির স্যুপ কফ সাফ করার ক্ষেত্রে বেশ কার্যকর। কারন এতে প্রাকৃতিক ডিকনজেস্ট্যান বিদ্যমান।এছাড়াও মুরগীর স্যুপে থাকা নিউট্রোফিল কাশি থেকে মুক্তি দেয়।অতএব মুরগীর স্যুপ হচ্ছে সুপার ফুড ঠান্ডাজনিত রোগে।
  6. পাঁচ
    ভেষজ চা
    ঠান্ডা এবং ফ্লু উপসর্গগুলি অনুভব করার সময়, হাইড্রেটেড থাকা জরুরী।ভেষজ চা সতেজ হয় এবং তাদের বাষ্পে শ্বাস-প্রশ্বাস সাইনাস থেকে কফ পরিষ্কার করতে সহায়তা করে।
    এক কাপ গরম পানিতে একটু হলুদ যোগ করা গলা ব্যথা উপশম করতে সাহায্য করতে পারে।গবেষণা থেকে জানা যায় যে হলুদে প্রদাহবিরোধী এবং এন্টিসেপটিক উভয় বৈশিষ্ট্য রয়েছে।এছাড়াও আদা চা,সজনে পাতার চা অথবা লবঙ্গ দিয়ে লাল চা ও বেশ উপকারী ঠান্ডার জন্য।তবে দুধ চা ক্ষতিকর।
  7. ছয়
    রসুন
    রসুন সব ধরণের স্বাস্থ্য সুবিধা প্রদান করতে পারে। এটি বহু শতাব্দী ধরে ঠান্ডার ঔষধি হিসাবে ব্যবহৃত হচ্ছে এবং এটি অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল, অ্যান্টিভাইরাল এবং অ্যান্টি-ফাংগাল সম্পন্ন যা ইমিউন সিস্টেমকে জাগ্রত করে।গবেষণায় দেখা গেছে রসুন গ্রহণকারী ব্যক্তিরা কেবল কম সময়েই অসুস্থ হয়ে পড়ে না।তাই রসুন গ্রহণ করতেই পারেন। একটি চমৎকার খাবার হতে পারে মুরগির স্যুপ বা ঝোলগুলিতে রসুন যুক্ত করা যা ঠান্ডা বা ফ্লুর লক্ষণগুলির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আরও কার্যকর করবে।
  8. সাত
    সবুজ শাকসবজি
    সবুজ শাকসবজি ঠান্ডার অনেক বড় ঔষধ।উদাহরণ হিসেবে পালংশাক ও ব্রকলির গুনাগুন টা দেয়া হলো

  9. পালং শাক
    পালং শাক শরীরের সংক্রমণ বিরোধী শক্তি বাড়ায় এবং এর ফলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে, ফলাফল হিসেবে শরীর সুস্থ্য থাকে সবসময়।

  10. ব্রকলি
    এই খাদ্যটিও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। ব্রকলি উচ্চ আঁশ ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ এবং এটা শীতকালের পুষ্টিকর খাবার হিসেবেও খাদ্যতালিকায় নিয়মিত রাখা যায়।
    তবে সবুজ শাকসবজির পুষ্টিগুণ ঠিক রাখতে কম তাপে রান্না করতে হবে।
  11. আট
    সিদ্ধ গাজর
    গাজরকে বলা হয় সুপার ফুড। গাজরের ভিটামিন ও মিনারেলস দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।তবে ঠান্ডা লাগলে কাঁচা গাজর না খেয়ে সেদ্ধ করেই খাওয়া উচিত।
  12. নয়
    ভিটামিন সি
    সকল সমস্যারই একটি সমাধান আছে, আর তার যথার্থ প্রমাণ পাওয়া যায় প্রকৃতির কাছেই। ঠান্ডা কাশির সমস্যা ও তার সমাধান ও পাওয়া যায় এই সাইট্রাস জাতীয় ফল থেকে। ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার রক্তে শ্বেত রক্তকণিকার পরিমাণ বাড়ায় এবং ঠান্ডা নিরাময়ে অবদান রাখে। এধরনের ফলের মধ্যে কমলা,লেবু ,আমলকি,পেয়ারা ইত্যাদি উল্ল্যেখযোগ্য।
  13. দশ
    হলুদ
    এতে বিদ্যমান কারকিউমিন একটি শক্তিশালী অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি যৌগ। এছি অ্যান্টিবডি প্রতিক্রিয়া বাড়িয়ে তোলে।তবে হলুদের কার্যকারিতা বাড়াতে হলুদের সাথে কালো মরিচ একত্রিত করার বিষয়টি নিশ্চিত করুন,তারা ২জন মিলে আপনার ঠান্ডাকে ভাগাবে।
  14. এগার
    প্রচুর ভিটামিন ডি
    গবেষণায় দেখা গেছে, যাদের ভিটামিন ডির অভাব হয়, তাদের সর্দি-কাশিতে কাবু করে বেশি।শরীরে ভিটামিন ডি থাকলে তা সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়তে সাহায্য করে।ডি জাতীয় খাবার-ডিমের কুসুম,কলিজা,দুধ ইত্যাদিতে পাওয়া যায়।তবে শুধু খাবার থেকে যথেষ্ট ভিটামিন ডি পাওয়া যায় না।সূর্যের আলোতে থাকতে হবে।সকাল ১১টা থেকে বেলা ৩টার মধ্যে সপ্তাহে দুই দিন কেউ যদি অন্তত ২০- ৩০ মিনিট সূর্যালোক গায়ে মাখে, তবে তা যথেষ্ট।এরপরো ডি সাপ্লিমেন্টস প্রয়োজন হয়,সেক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।
  15. বার
    দই
    প্রতি কাপে ১৫০ ক্যালোরি এবং ৮গ্রাম প্রোটিন রয়েছে।এছাড়াও দই ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ এবং অন্যান্য ভিটামিন এবং খনিজ পূর্ণ।
    কিছু দইয়ে উপকারী প্রোবায়োটিকও থাকে।
    প্রমানগুলি দেখায় যে প্রোবায়োটিকগুলি শিশু এবং প্রাপ্তবয়স্ক উভয়কেই ঠান্ডাজনিত অসুস্থতা হলে দ্রুত নিরাময় করতে পারে এবং তাতে করে কম অ্যান্টিবায়োটিক গ্রহণ করা হয়।
    একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে যে প্রবায়োটিক গ্রহণকারী শিশুরা গড়ে দুই দিনের দ্রুততর ভাল অনুভব করেন।তাই দই গ্রহণ করুন,তবে একদম ফ্রিজে থাকাটা নয়।নরমাল করে খেতে হবে।ঠান্ডা খাওয়া যাবেনা।
  16. তের
    বাদাম
    অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি খাবার।এছাড়াও বাদামে বেশ কয়েকটি পুষ্টি রয়েছে যা ভিটামিন ই এবং বি৬,জিংক এবং ফোলেট যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করে।মানসিক চাপ কমাতে গবেষণায় বাদামকে দেখানো হয়েছে।আমরা অনেকেই জানিনা যে স্ট্রেস রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল করে দেয়।তাই বাদাম খেতে কিন্তু ভুলবেন না!তবে ঠান্ডা লাগার আগে খেতে হবে।ঠান্ডা যদি লেগে যায় সেক্ষেত্রে বাদামকে পরিহার করতে হবে।
    সবশেষে গরম পানির গার্গল করবেন,যদি ঠান্ডা লাগে।ঠান্ডা না লাগলে গরম পানি খাওয়ার কোনো দরকার নেই।
    এবার নিশ্চয়ই বুঝেছেন এই ঠান্ডা পরবর্তী ও ঠান্ডা পূর্ববর্তী নির্দেশনা কী মানতে হবে।আশা করি আপনাদের এই গাইডলাইন কাজে দিবে।
    লেখক পুষ্টিবিদ সিরাজাম মুনিরা
    কনসালটেন্ট ডায়েটিশিয়ান
    ইবনেসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও কেয়ার মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল
  1. royalbangla.com এ আপনার লেখা বা মতামত বা পরামর্শ পাঠাতে পারেন এই এ‌্যড্রেসে [email protected]
পরবর্তী পোস্ট

পছন্দের ফল কিভাবে খাচ্ছেন??


ব্রণ সমস‌্যার ঘরোয়া সমাধান- সহজ এবং শতভাগ কার্যকরী

রয়াল বাংলা ডেস্ক
মোবাইল ফোনের রেডিয়েশন আপনার কিভাবে ক্ষতি করছে? জেনে নিন।

রয়াল বাংলা ডেস্ক
পাইলস কি, কেন এবং কিভাবে হয়?

Colorectal Care Dr. Md Ashek Mahmud Ferdaus
কোষ্ঠকাঠিন্য কি, এর জটিলতা ও সমাধান

Colorectal Care Dr. Md Ashek Mahmud Ferdaus
ফুড সাপ্লিমেন্ট কি ? কেন নেবেন?

পুষ্টিবিদ জয়তী মুখার্জী
ইসবগুলের ভুসি খাওয়ার উপকারিতা ও নিয়ম

Colorectal Care Dr. Md Ashek Mahmud Ferdaus
পুরুষের বন্ধ্যাত্বের সমস্যা কেন বাড়ছে ?

ডাঃ আয়েশা রাইসুল
খারাপ কোলেস্টেরল কি ? কিভাবে কমানো যায় ?

পুষ্টিবিদ সিরাজাম মুনিরা
ভাতের আসক্তি কমানোর উপায় কি?

ডায়েটিশিয়ান ফারজানা
প্রি-ডায়াবেটিস বা ডায়াবেটিস এর ঝুকি

Nutritionist Iqbal Hossain
ফর্সা হতে চান?

পুষ্টিবিদ সিরাজাম মুনিরা
ভাত কতটা ওজন বাড়ায়?

পুষ্টিবিদ তাহমিনা আক্তার
গ্রিন টি বা সবুজ চা কেন খাবেন ?

Nusrat Jahan
এলার্জি কিভাবে কমাবেন?

Dietitian Shirajam Munira
গ্যাসের সমস্যা ওষুধ খেয়ে না কমিয়ে প্রাকৃতিক উপায়ে কমান

ডায়েট কনসালটেন্ট নুসরাত জাহান
ধাতু রোগ কি? কেন কিভাবে হয়? কী করণীয়

royalbangla desk
মাইগ্রেন থেকে দূরে থাকবেন কিভাবে?

নুসরাত জাহান, ডায়েট কনসালটেন্ট
চুল কি একটু বেশি পড়ছে? পর্ব-১

পুষ্টিবিদ জয়তী মুখার্জী
কিটো ডায়েটের নেগেটিভ দিক!

ডাঃ আয়েশা রাইসুল (গভঃ রেজিঃ H-১৫৯৮)
স্তনের চাকা এবং ক্যান্সার আতংক

ডাঃ লায়লা শিরিন,সহযোগী অধ্যাপক, ক্যান্সার সার্জারী, জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইন্সটিটিউট ও হাসপাতাল

নরমাল ডেলিভারির জন্য কিছু টিপস

ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা),Consultant Sonologist
'নরমাল' ডেলিভারি হলো এমন একটি ডেলিভারি পদ্ধতি যেখানে কোন প্রকার অস্ত্রোপচার বা সার্জিক্যাল প্রক্রিয়া জড়িত নয়। এটি একটি ভেজাইনাল ডেলিভারি যা স্বতঃস্ফূর্ত,........
বিস্তারিত

কি কি লক্ষণ দেখা দিলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিবেন??

ডা. মোহাম্মদ মাসুমুল হক,আবাসিক চিকিৎসক, ক্যান্সার সোসাইটি হাসপাতাল এন্ড ওয়েলফেয়ার হোম
ক্যান্সার চিকিৎসা একটি দীর্ঘ মেয়াদি চিকিৎসা। এবং এই চিকিৎসার যেহেতু কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া রয়েছে তাই এই চিকিৎসা চলাকালীন একজন ব্যক্তির কিছু শারীরিক সমস্যা বা উপসর্গ দেখা দিতে পারে।.........
বিস্তারিত

সাপে কামড়ালে ওঝা নাকি ডাক্তার?

ডাঃ ইকবাল আহমেদ,সহকারী অধ্যাপক,বার্ণ ও প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগ
আমাদের দেশে প্রায় ১০০ প্রজাতির সাপ আছে,যার মধ্যে কেবল ৬ প্রজাতির সাপ বিষধর,বাকী ৯৪ প্রজাতির কোন বিষ নেই।অর্থাৎ এই ৯৪ প্রজাতির সাপ কামড়ালে কোন সমস্যা নেই,......
বিস্তারিত

ভীতিটা যখন অহেতুক (Phobia)

জিয়ানুর কবির,ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিষ্ট
কোন পরিস্থিতি, বিষয়, বা বস্তুকে একটি নির্দিষ্ট মাত্রা পর্যন্ত ভয় পাওয়া স্বাভাবিক। তবে এই ভয়ের অনুভূতি স্বাভাবিক মাত্রা অতিক্রম করে এবং জীবন যাত্রাকে ব্যাপকভাবে প্রভাবিত করে,......
বিস্তারিত

খিচুড়ী কি আসলেই পুষ্টিকর খাবার??

নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,
খিচুড়ী মানে কি : চাল, ডাল, সবজি তেল যোগে যা বানানো হয় তাইতো?? । পুষ্টিবিদদের ভাষায় প্রোটিন ও ক্যালরির এক দারুন মেলবন্ধন এর নাম খিচুড়ি। এক সময় বন্যা দূর্গত এলাকায় দ্রুত বাচ্চাদের খাবারের অপ্রতুলতা থেকে বাচাতে এই চাল ডাল আলু যোগে খিচুড়ী দেয়া হতো।.......
বিস্তারিত

ক্যান্সার রোগীর মানসিক যত্ন

DR. MOHAMMAD MASUMUL HAQUE,Cancer Prevention Physician
ক্যান্সার শব্দটির সাথেই যেনো জড়িয়ে আছে ভয়, বিষন্নতা, অবসাদ। বিশেষ করে ক্যান্সার নির্ণয় হবার পর একজন ব্যক্তি ও পরিবার যেই উৎকন্ঠতায় সময় কাটায় তা অন্য কারো বুঝা সম্ভব নয়।.....
বিস্তারিত

তীব্র এংজাইটি বা প্যানিকের সাইকোলজিক্যাল ব্যাখ্যা ও চিকিৎসা।

জিয়ানুর কবির,ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিষ্ট
নির্দিষ্ট বাহ্যিক বা অভ্যন্তরীণ উদ্দিপনা ট্রিগার করে ফলে ব্যক্তির মধ্যে বিপদ, ব্যাথা বা শারীরিক সমস্যার হুমকি অনুভব হয় (আমার ক্ষতি হবে, শারীরিক অসুস্থ হয়ে যাব......
বিস্তারিত

সকালে খালি পেটে যে ভুল করবেন না

ডা. মুহম্মদ মুহিদুল ইসলাম,সায়েন্টিফিক অফিসার
অনেকেই মনে করেন সকালে খালি পেটে থাকলে, নানান সমস্যাই ঘিরে ধরে৷ খালি পেটে থাকলে বেশ করেক রকমের শরীর খারাপ হতে পারে৷ এমনও শুনতে পাওয়া যায়, সকালে খালি পেটে থাকলে অ্যাসিডিটি, পেট ব্যথ্যা, গা বমিবমি ভাব, ব্লাড সুগারের সমস্যা দেখা দেয়৷ .......
বিস্তারিত

বাচ্চাকে খাবার খাওয়ানোর ভুল পজিশন

নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,
বাচ্চাকে খাবার কিভাবে খাওয়াতে হয় তা ৭০ ভাগ মা জানেন না। আবার কেউ জেনেও মানেন না। শুধু মা নন বাচ্চা পালার সাথে সম্পর্কিত সব ব্যাক্তি ই এই সব ব্যাপারে পূর্ববর্তী দাদা দাদির ইতিহাস টেনে..........
বিস্তারিত

ক্যান্সার রোগীর রক্ত স্বল্পতা

DR. MOHAMMAD MASUMUL HAQUE,Cancer Prevention Physician
কেমো থেরাপির কারণে রোগীর রক্তের অন্যান্য উপাদানের মতো লোহিত কণিকাও হ্রাস পায়, যার ফলে এনেমিয়া (রক্ত স্বল্পতা) দেখা দিতে পারে। তাই চিকিৎসা চলাকালীন প্রায়ই দেখা যায় রোগীকে রক্ত নিতে হয়।......
বিস্তারিত

সুস্থ এবং ফিট থাকতে একজন নারী প্রাত্যহিক জীবনে যে রুটিন মেনে চলবেন

পুষ্টিবিদ মুনিয়া মৌরিন মুমু
একজন নারী যিনি কর্মজীবী হোন কিংবা গৃহিণী, সকাল থেকে রাত অবধি প্রচন্ড ব্যস্ত সময় পার করেন। সারাদিনের ব্যস্ততায় নিজের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করতে গিয়ে অনেকেই নিজের প্রতি খেয়াল রাখার সময় পান না।.......
বিস্তারিত

ছেলে না মেয়ে হবে

ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা),Consultant Sonologist
আপনার ছেলে না মেয়ে হবে এটি আসলে পুরোপুরি সৃষ্টি কর্তার হাতে। এখানে আমরা চাইলেও কিছুই করতে পারি না। তবে ছেলে না মেয়ে হবে তাতে বাবা মায়ের কি কোন ভূমিকা নাই?......
বিস্তারিত

গর্ভবতী মহিলা কি কোভিড টীকা নিতে পারবেন ?


ডাঃ হাসনা হোসেন আখী,এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য),এমএস (অবস এন্ড গাইনী)

সম্পর্কের ক্ষেত্রে যৌনস্বাস্থ্যের গুরুত্বপূর্ণতা


ডা. ফাতেমা জোহরা

সত্যিই কি প্লাস্টিকের ডিম আর চালের অস্তিত্ব আছে?


পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন।

ডেংগি ও প্লেইটলেট(ডেংগু নিয়ে কিছু ভ্রান্ত আতঙ্ক)


ডাঃ গুলজার হোসেন

দাঁতের যত্নে গুরুত্বপূর্ণ ৮ টি টিপস


ডাঃ তারিকুল সরকার (তারেক)

মনের যত্ন


জিয়ানুর কবির

করোনায় ফুসফুস কে ভালো রাখবেন কি করে?


পুষ্টিবিদ জয়তী মুখার্জী

ত্বকের উজ্জ্বলতায় কিশমিশ


পুষ্টিবিদ মুনিয়া মৌরিন মুমু

সাবধান! ক্যানসার তৈরি করে যেসব খাবার! দেখুন হয়তো খেয়েই চলেছেন!


ডাঃ আয়েশা রাইসুল (গভঃ রেজিঃ H-১৫৯৮)

পিত্তথলির ক্যান্সার অপারেশন : কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস


ডাঃ লায়লা শিরিন

মানসিক রোগ: প্রচলিত ভ্রান্ত ধারণা ও সীমাবদ্ধতা


ডা. ফাতেমা জোহরা

ফিস্টূলা বা ভগন্দর বা কেন হয় ? এর সমাধান কি ?


ডাঃ মোঃ মাজেদুল ইসলাম

মলদ্বারে ব্যাথা/ ঘা (এনাল ফিসার) কেন হয় ? এর সমাধান কি ?


ডাঃ মোঃ আশেক মাহমুদ ফেরদৌস

আসুন প্রসবোত্তর বিষন্নতা (Postpartum Depression) সম্বন্ধে জানি


জিয়ানুর কবির

ভিটামিন-E কি কাজে লাগে ? কোথায় পাওয়া যায় ?


পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন

আম খাবো নাকি খাবোনা?


পুষ্টিবিদ জয়তী মুখার্জী

হাপানি রোগঃ শুধু ওষুধই সব নয়।


ডাঃ স্বদেশ বর্মণ

ব্ল্যাক ফাঙ্গাস বা মিউকরমাইকোসিস (সবার পড়ার জন্য অনুরোধ করবো)


পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন

মলদ্বারের রক্তপাত হলেই কি পাইলস ???


ডাঃ মোঃ মাজেদুল ইসলাম

সাবধান! ক্যানসার তৈরি করে যেসব খাবার! দেখুন হয়তো খেয়েই চলেছেন!


ডাঃ আয়েশা রাইসুল (গভঃ রেজিঃ H-১৫৯৮)

পিত্তথলির ক্যান্সার অপারেশন : কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস


ডাঃ লায়লা শিরিন

মানসিক রোগ: প্রচলিত ভ্রান্ত ধারণা ও সীমাবদ্ধতা


ডা. ফাতেমা জোহরা

ফিস্টূলা বা ভগন্দর বা কেন হয় ? এর সমাধান কি ?


ডাঃ মোঃ মাজেদুল ইসলাম

মলদ্বারে ব্যাথা/ ঘা (এনাল ফিসার) কেন হয় ? এর সমাধান কি ?


ডাঃ মোঃ আশেক মাহমুদ ফেরদৌস