loading...









loading...

Royalbangla
ডাঃ হাসনা হোসেন আখী,এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য),এমএস (অবস এন্ড গাইনী)
ডাঃ হাসনা হোসেন আখী,এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য),এমএস (অবস এন্ড গাইনী)

ওয়াটার ব্রেক করা বা পানি ভাঙ্গা: যা জানা প্রয়োজন

মেয়েলি সমস্যা

ওয়াটার ব্রেক করা বা পানি ভাঙ্গা ভাঙা প্রসবের পূর্ব লক্ষণ ঠিকই; তবে তা নির্দিষ্ট সময়ে!

মা হতে চলেছেন আপনি! এর থেকে খুশির খবর আর মনে হয় কিচ্ছুটি হয় না। শরীরের ভিতরে একটু একটু করে বেড়ে ওঠা প্রাণ সাড়ম্বরে জানান দিচ্ছে তার অস্তিত্ব। নানান ধরনের পরিবর্তনের সম্মুখীন হচ্ছেন আপনিও। নিজের শরীরে যতটা গর্ব ভরে বয়ে চলেছেন মাতৃত্বের সমস্ত চিহ্ন; শরীরের ভিতরে ঘটা পরিবর্তন সম্বন্ধে আপনি ততটাই ওয়াকিবহাল তো? (How to Know When Your Water Breaks)

না, কোনও শক্ত হিসেব বা ডাক্তারি অভিজ্ঞতা নিয়ে আপনাকে ঘাঁটাঘাঁটি করতে বলছি না। নিজের শরীরে যা পরিবর্তন হচ্ছে বা আগামীতে হতে পারে, সেই নিয়ে আপনাকে একটু সজাগ থাকতে বলছি মাত্র। এতে কী হয়? কোনও অবস্থাতেই আপনি অযথা প্যানিক করবেন না বা ঘাবড়ে যাবেন না!

'পানি ভাঙা' বা 'ওয়াটার ব্রেক' করা প্রেগন্যান্সিতে খুব সাধারণ একটি ঘটনা (Water Breaking During Pregnancy)। নির্দিষ্ট সময়ে এই ওয়াটার ব্রেক হওয়া যেমন কাম্য, অন্য সময় হয়ে গেলে তা ভয়ের কারণই হতে পারে। তাই প্রয়োজন যথাযথ তত্ত্বাবধান ও চিকিৎসার।

কখন ওয়াটার ব্রেক হলে ভয় পাবেন না বা কখন হলে সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তারকে খবর দেবেন, ওয়াটার ব্রেক হয়েছে সেটা বুঝবেন কীভাবে (How to Know When Your Water Breaks) এবং এই 'ওয়াটার ব্রেক' ঘটনাটি কী? সবকিছু নিয়ে আলোচনা রইল । আশা করি, হবু মায়েদের অনেকটাই সাহস জোগাবে এই আলোচনাটি।

পানি কেন ভাঙে বা ওয়াটার ব্রেক কেন হয়? (Why does the water break?)

সোজা ভাষায় বললে, গর্ভাবস্থায় থাকাকালীন বাচ্চা পানি ভর্তি একটা থলের মধ্যে বড় হয়। এই ব্যাগের পোশাকি নাম অ্যামনিওটিক স্যাক। আর এই ফ্লুয়িডকে বলে অ্যামনিওটিক ফ্লুয়িড। প্রসবের সময় হয়ে এলে এই স্যাক ভেঙে যায় এবং এর ভিতরের সমস্ত তরল হবু মায়ের ভ্যজাইনা দিয়ে বাইরে বেরিয়ে আসে। একেই ওয়াটার ব্রেক হওয়া বা চলতি কথায় 'পানি ভাঙা' বলে.

ওয়াটার ব্রেক হলে সেটা একজন গর্ভবতী বুঝবেন কীভাবে? (How to Know When Your Water Breaks)

- হঠাৎ ভ্যাজাইনা থেকে সরু স্রোতের মতো বর্ণহীন তরল বেরিয়ে আসে।

- অস্বাভাবিক ভাবে প্যান্ট ভিজে যাওয়া।

- তরলটির গন্ধ কিন্তু ইউরিনের মতো একেবারেই হয় না। বরং সেটা একটু মিষ্টি গন্ধযুক্ত হতে পারে। (Water Breaking Signs)

- ইউরিন হওয়ার সময় আমরা কিন্তু চাইলে তার বেগ কমাতে পারি, কিন্তু এই তরল যোনিপথ দিয়ে বাইরে বেরিয়ে আসে এবং যখন বেরোয় তখন এর বেগ কন্ট্রোল করা যায় না।

পানি ভাঙার সাথে প্রসব কীভাবে জড়িত? (Water Breaking as Sign of Labor)

সাধারণত, গর্ভবতী মহিলাদের তৃতীয় ট্রাইমেসটারের শেষের দিকে ওয়াটার ব্রেক হওয়া মানে প্রসবের সময় আসন্ন। ওয়াটার ব্রেক হওয়ার পরেই প্রসব যন্ত্রণা শুরু হয়। ওয়াটার ব্রেক হওয়ার ১২-২৪ ঘণ্টার মধ্যে লেবার পেন বা প্রসব যন্ত্রণা শুরু হতে পারে। অবশ্য কারও কারও ক্ষেত্রে এই সময়ের কম-বেশি হতেই পারে। যদি নির্দিষ্ট সময়ে ওয়াটার ব্রেক হয়ে গেছে, অথচ প্রসব বেদনা শুরু হচ্ছে না এরকম হয়; সেক্ষেত্রে চিকিৎসক ওষুধ প্রয়োগ করেন প্রসব বেদনা ওঠানোর জন্য।

এই অ্যামনিওটিক ফ্লুয়িড বেরিয়ে যাওয়ার পরে খুব বেশিক্ষণ বাচ্চা পেটের মধ্যে থাকলে ইনফেকশন হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। ক্ষতি হতে পারে বাচ্চা এবং সাথে মায়েরও। তাই ওয়াটার ব্রেক হয়ে যাওয়ার পরে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব প্রসব হয়ে যাওয়াই মঙ্গলের।মাত্র ১৫ শতাংশ মহিলার লেবার পেন বা প্রসব বেদনা ওঠার আগে ওয়াটার ব্রেক হয়ে যায়। বাকিদের ক্ষেত্রে লেবার পেন ওঠার পরেই এই ওয়াটার ব্রেক হয় বা ওষুধ/ইঞ্জেকশন প্রয়োগ করে করানো হয়।

নির্দিষ্ট সময়ের আগেই ওয়াটার ব্রেক বা পানি ভাঙলে কী হয়? (Premature Rupture of Membranes)

তৃতীয় ট্রাইমেসটার যখন শেষের দিকে, তখন ওয়াটার ব্রেক হওয়া খুব স্বাভাবিক এবং প্রার্থনীয়ও বটে! কিন্তু, ৩৭ সপ্তাহের আগেই যদি এই ঘটনা ঘটে, তা হলে একে প্রিটার্ম প্রিলেবার রাপচার অফ মেম্ব্রেন্স (Premature Rupture of Membranes) বলা হয়।

আগে কোনও প্রেগন্যান্সিতে সময়ের আগেই ওয়াটার ব্রেক হয়েছিল
অ্যামনিওটিক স্যাকে কোনওভাবে ইনফেকশন ছড়িয়ে গেলে
খাওয়া উচিত নয় এমন কোনও ওষুধ খেলে
ধূমপান বা মদ্যপান করলে
হবু মায়ের স্বাস্থ্য ভালো না হলে বা পুষ্টির অভাব হলে
সারভিকাল লেংথ ছোট থাকলে
প্রেগন্যান্সি চলাকালীন ব্লিডিং-এর সমস্যা দেখা দিলে।

সময়ের আগে ওয়াটার ব্রেক হলে যা হয়:

- মা ও বাচ্চার ক্ষতি হতে পারে

- গর্ভস্থ সন্তান নষ্ট পর্যন্ত হয়ে যেতে পারে বা মিসক্যারেজ হয়ে যায়

- ২৪ সপ্তাহ চলাকালীন ওয়াটার ব্রেক হয়ে গেলে, চিকিৎসক মা ও সন্তানের শরীর বুঝে কী ধরনের জটিলতা পরবর্তীতে আসতে পারে, তা বুঝিয়ে দিতে পারেন। সেক্ষেত্রে উভয়ের শারীরিক অবস্থা অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

- ২৪-৩৪ সপ্তাহ চলাকালীন যদি ওয়াটার ব্রেক হয়, তা হলে হবু মা’কে বিশেষ যত্নে রাখা হয় এবং ডেলিভারি যতটা সম্ভব পরে করা যায় সেই চেষ্টাই করা হয়। এর একটাই কারণ, গর্ভস্থ ভ্রূণ যাতে আরও কিছুটা পরিণত হয়ে ওঠে। মা ও হবু সন্তানকে বিশেষ ডাক্তারি তত্ত্বাবধানে রাখা হয়।

- ৩৪ সপ্তাহ চলাকালীন এই ঘটনা হলে, ডাক্তাররা ডেলিভারি করিয়ে দেওয়াই উচিত মনে করেন। কোনও ইনফেকশন হয়ে যাতে ভ্রূণের ক্ষতি না হয়, সেই কারণেই সময়ের আগেই ডেলিভারির কথা ভাবা হয়। সময়বিশেষে এই সিদ্ধান্তেরও পরিবর্তন হয়। যদি দেখা যায়, কোনও অসুবিধা হচ্ছে না বা কোনও ইনফেকশন হওয়ার আশঙ্কা নেই; সেক্ষেত্রে বিশেষভাবে মনিটর করা হয় মা ও সন্তানকে। এবং সময় বুঝেই ডেলিভারি করানো হয়।

বাড়িতে থাকা অবস্থায় ওয়াটার ব্রেক হলে কী করবেন? (What to Do if Water Breaks at Home)

- প্রসবের সময় যত এগিয়ে আসবে, আপনার ডাক্তারও কিন্তু আপনাকে সেইভাবে তৈরি করবেন। যাতে যে কোনও অবস্থায় আপনি অতিরিক্ত ঘাবড়ে না যান। আপনার শরীরের অবস্থা অনুযায়ী তিনি এই বিষয়েও আপনাকে সবকিছু জানিয়ে রাখবেন। মেনে চলুন ওনার পরামর্শই।

- যদি আপনি খুব ভয় পেয়ে যান বা ডাক্তারের বলা কথা আপনার মনে না থাকে; তা হলেও কোনও অসুবিধা নেই। সত্বর চলে যান ওনার চেম্বারে।

- যদি আপনার ডাক্তার বলেছেন যে, ওয়াটার ব্রেক হওয়ার পরবর্তী ১২ ঘণ্টা অপেক্ষা করে দেখতে লেবার পেন উঠছে কি না, তা হলে সেটাই করুন। এই সময়টা খুবই সাবধানে থাকবেন কারণ এই সময়ে বাচ্চার ইনফেকশন হয়ে যাওয়ার প্রবল আশঙ্কা থাকে। ভিজে যাওয়া আটকাতে ভালো মানের প্যাড ব্যবহার করুন। কোনও কাপ না ট্যামপোন্স ব্যবহার করবেন না।

- ভ্যাজাইনাল এরিয়া পরিষ্কার রাখুন, বাথরুমে গেলে নিজের গোপনাঙ্গ সামনে থেকে পিছনের দিকে পরিষ্কার করুন।

- পরিষ্কার জায়গায় বিশ্রাম নিন এবং একটু শুয়ে বসে থাকুন।

সময়বিশেষে এই জল ভাঙার পদ্ধতি কি বাইরে থেকে ত্বরান্বিত করা যায়? (Artificially Breaking Your Water)

প্রসব যন্ত্রণা উঠেছে এবং অনেকক্ষণ ধরে চলছে; অথচ ওয়াটার ব্রেক হয়নি। এরকম অবস্থায় চিকিৎসক অনেক ক্ষেত্রেই বাইরে থেকে বিশেষ ব্যবস্থা নিয়ে ওয়াটার ব্রেক করিয়ে দেন। প্রসবক্রিয়া কিছুটা হলেও কম সময় নেয়। ওয়াটার ব্রেক হয়ে গেলে কন্ট্রাকশন আরও তীব্র হয় এবং ব্যথাও বেশি হয়।

এছাড়াও প্রেগন্যান্সিতে কখনও ওয়াটার ব্রেক হলে যদি সেই জল বাদামি বা সবুজ রঙের বেরোয়, সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তারকে ডাকুন। বাচ্চা পেটের ভিতর মলত্যাগ করলে এই ঘটনা হতে পারে। যথাযথ ব্যবস্থা না নিলে ইনফেকশন ছড়িয়ে যাওয়ার আশঙ্কা প্রবল। নিজের শরীরে ঘটা পরিবর্তনগুলো সম্পর্কে নিজে ওয়াকিবহাল থাকুন এবং সতর্ক থাকুন, দেখবেন কোনও ঘটনাই আপনাকে বিব্রত করতে পারবে না।

এই লেখকের সব লেখা পড়ুন নিচের লিংক থেকে।
www.royalbangla.com/dr.hasnahossain

লেখিকা
ডাঃ হাসনা হোসেন আখী
এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য)
এমএস (অবস এন্ড গাইনী)
ট্রেইন্ড ইন ল্যাপারস্কপি এন্ড ইনফার্টিলিটি স্ত্রী রোগ ও প্রসূতি বিদ্যা বিশেষজ্ঞ এবং ল্যাপারস্কপিক সার্জন।
ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।
নিয়মিত রোগী দেখছেন: মার্কস কনসালটেশন সেন্টার।
প্রতিদিন : বিকেল ৫ টা হতে রাত ৮ টা পর্যন্ত।
সিরিয়াল :
01729-269437.
সিরাজ মার্কেট (২য় তলা), কচুক্ষেত, ঢাকা-১২০৬। (ফুট ওভার ব্রিজের পাশে)
লেখকের সাথে যোগাযোগ করতে নিচের ফেসবুক পেইজে ক্লিক করুন
www.facebook.com/dr.hasnahossain

  1. royalbangla.com এ আপনার লেখা বা মতামত বা পরামর্শ পাঠাতে পারেন এই এ‌্যড্রেসে [email protected]
পরবর্তী পোস্ট

একজন সিনিয়র প্রফেসর ডাক্তারের চেম্বারটি হতে পারে একটি ছোটখাট ইন্সিটিটিউশন


ব্রণ সমস‌্যার ঘরোয়া সমাধান- সহজ এবং শতভাগ কার্যকরী

রয়াল বাংলা ডেস্ক
মোবাইল ফোনের রেডিয়েশন আপনার কিভাবে ক্ষতি করছে? জেনে নিন।

রয়াল বাংলা ডেস্ক
পাইলস কি, কেন এবং কিভাবে হয়?

Colorectal Care Dr. Md Ashek Mahmud Ferdaus
কোষ্ঠকাঠিন্য কি, এর জটিলতা ও সমাধান

Colorectal Care Dr. Md Ashek Mahmud Ferdaus
ফুড সাপ্লিমেন্ট কি ? কেন নেবেন?

পুষ্টিবিদ জয়তী মুখার্জী
ইসবগুলের ভুসি খাওয়ার উপকারিতা ও নিয়ম

Colorectal Care Dr. Md Ashek Mahmud Ferdaus
পুরুষের বন্ধ্যাত্বের সমস্যা কেন বাড়ছে ?

ডাঃ আয়েশা রাইসুল
খারাপ কোলেস্টেরল কি ? কিভাবে কমানো যায় ?

পুষ্টিবিদ সিরাজাম মুনিরা
ভাতের আসক্তি কমানোর উপায় কি?

ডায়েটিশিয়ান ফারজানা
প্রি-ডায়াবেটিস বা ডায়াবেটিস এর ঝুকি

Nutritionist Iqbal Hossain
ফর্সা হতে চান?

পুষ্টিবিদ সিরাজাম মুনিরা
ভাত কতটা ওজন বাড়ায়?

পুষ্টিবিদ তাহমিনা আক্তার
গ্রিন টি বা সবুজ চা কেন খাবেন ?

Nusrat Jahan
এলার্জি কিভাবে কমাবেন?

Dietitian Shirajam Munira
গ্যাসের সমস্যা ওষুধ খেয়ে না কমিয়ে প্রাকৃতিক উপায়ে কমান

ডায়েট কনসালটেন্ট নুসরাত জাহান
ধাতু রোগ কি? কেন কিভাবে হয়? কী করণীয়

royalbangla desk
মাইগ্রেন থেকে দূরে থাকবেন কিভাবে?

নুসরাত জাহান, ডায়েট কনসালটেন্ট
চুল কি একটু বেশি পড়ছে? পর্ব-১

পুষ্টিবিদ জয়তী মুখার্জী
কিটো ডায়েটের নেগেটিভ দিক!

ডাঃ আয়েশা রাইসুল (গভঃ রেজিঃ H-১৫৯৮)
স্তনের চাকা এবং ক্যান্সার আতংক

ডাঃ লায়লা শিরিন,সহযোগী অধ্যাপক, ক্যান্সার সার্জারী, জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইন্সটিটিউট ও হাসপাতাল

রক্তশূণ্যতা কী? কারণ, লক্ষণ ও প্রতিকার।

ডাঃ গুলজার হোসেন
রক্তের প্রধান দুটি উপাদান হলো রক্তকোষ ও রক্তরস। লোহিত রক্তকণিকায় থাকে হিমোগ্লোবিন নামের রঞ্জক পদার্থ, যা দেহের বিভিন্ন কোষে অক্সিজেন সরবরাহ করে।তাই হিমোগ্লোবিন কমে গেলে সারা শরীরে দেখা দেয় বিরূপ প্রতিক্রিয়া। আর রক্তে হিমোগ্লোবিন কমে যাওয়ার নাম হলো অ্যানিমিয়া বা রক্তশূন্যতা।......
বিস্তারিত

মাইগ্রেন থেকে দূরে থাকবেন কিভাবে?

নুসরাত জাহান, ডায়েট কনসালটেন্ট
মাইগ্রেন এক বিশেষ ধরনের মাথাব্যথা। মাথার যে কোনও এক পাশ থেকে শুরু হয়ে তা মারাত্মক কষ্টকর হয়ে ওঠে। তাই একে ‘আধ-কপালি ’ ব্যথাও বলা হয়ে থাকে। মাইগ্রেনের যন্ত্রণা অত্যন্ত কষ্টদায়ক এবং দীর্ঘস্থায়ী। যাঁদের মাইগ্রেনের সমস্যা রয়েছে, তীব্র মাথা যন্ত্রণার পাশাপাশি তাঁদের বমি বমি ভাব, শরীরে এবং মুখে অস্বস্তিভাব দেখা দিতে পারে। .........
বিস্তারিত

ফিটাল গ্রোথ স্ক্যান (Fetal Growth Scan) কি, কখন এবং কেন করা প্রয়োজন।

ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা),Consultant Sonologist
ফিটাল গ্রোথ স্ক্যান হ'ল এক প্রকার আল্ট্রাসাউন্ড স্ক্যান যা গর্ভধারণের ২৪ সপ্তাহের পর হতে প্রসবের পূর্ব পর্যন্ত যে কোন সময় শিশুর বৃদ্ধি ও সুস্থতা নির্ধারণ করতে করা হয়ে থাকে। এটি এক বা একাধিক বার করা যেতে পারে (প্রয়োজন অনুসারে)।...........
বিস্তারিত

আপনি জানেন কি? শারীরিক পরিশ্রমে, ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে?

ডা. মোহাম্মদ মাসুমুল হক,আবাসিক চিকিৎসক, ক্যান্সার সোসাইটি হাসপাতাল এন্ড ওয়েলফেয়ার হোম
প্রতিদিন গড়ে অন্তত ৩০-৬০ মিনিট করে, সপ্তাহে ০৫ দিন (মোট ১৫০-৩০০ মিনিট) এমন কিছু কায়িক পরিশ্রম, যাতে হৃদ স্পন্দন বৃদ্ধি পায় ও ঘাম হয়। .........
বিস্তারিত

কেন 'টেস্ট' দেন চিকিৎসক?

Dr.Afjal Hossain
চিকিৎসা নিতে গেলে প্রায়ই চিকিৎসকেরা আমাদের নানা শারীরিক পরীক্ষা (টেস্ট) করতে দেন। আমরা বুঝি না কেন এসব পরীক্ষা করা হচ্ছে? রোগের চিকিৎসায় এটি কতটা কাজে লাগবে?........
বিস্তারিত

একজন অন্তর্মুখী মানুষকে চিনবো কিভাবে?

ডা. মুহম্মদ মুহিদুল ইসলাম,সায়েন্টিফিক অফিসার
এঁদের পছন্দকারী মানুষের সংখ্যা অনেক সময় তুলনামূলকভাবে কম হয়। অন্তর্মুখী স্বভাবের জন্য অনেকেই অহংকারী ভেবে বসতে পারে।.......
বিস্তারিত

ফিটাল পাইলেক্টেসিস এবং হাইড্রোনেফ্রোসিস (Fetal Pyelectasis & hydronephrosis)

ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা),Consultant Sonologist
বুঝার জন্য, প্রথমে মূত্রতন্ত্র কিভাবে কাজ করে তা বুঝা দরকার। সহজ কথায় বলা যায়, কিডনি রক্ত ফিল্টার করে শরীর থেকে বর্জ্য পদার্থ অপসারণ করে যা প্রস্রাবের মাধ্যমে শরীর থেকে বের হয়ে যায়। কিডনি থেকে প্রস্রাব কিডনির পেলভিসে জমা হয়,.......
বিস্তারিত

ক্যান্সার চিকিৎসার সময় কি কি লক্ষণ দেখা দিলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিবেন??

DR. MOHAMMAD MASUMUL HAQUE,Cancer Prevention Physician
ক্যান্সার চিকিৎসা একটি দীর্ঘ মেয়াদি চিকিৎসা। এবং এই চিকিৎসার যেহেতু কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া রয়েছে তাই এই চিকিৎসা চলাকালীন একজন ব্যক্তির কিছু শারীরিক সমস্যা বা উপসর্গ দেখা দিতে পারে।......
বিস্তারিত

IBS (Irritable Bowel Syndrome) ইরিটেবল বাওয়েল সিনড্রোম বা বদহজমের সমস্যায় কী করণীয়?

ডা. মুহম্মদ মুহিদুল ইসলাম,সায়েন্টিফিক অফিসার
বৃহদান্ত্রের খুব কমন সমস্যা হচ্ছে IBS । আমাদের পরিচিত অনেকেই হয়ত IBS এ আক্রান্ত।এ রোগটা কিছুটা অস্বস্তিকর। মাঝে মাঝে কিছু খেলেই এমনকি মানসিক চাপে থাকলেও এই রোগের লক্ষন বেড়ে যায়।বারবার বাথরুমে ছোটাছুটি করা লাগে।........
বিস্তারিত

বাচ্চাদের খাবারে কিছু কমন রুলস আমাদের কে মেনে চলতে হবে.........

নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,Bsc (Hon's) Msc (food & Nutrition)
১. খাবারে বৈচিত্র্য রাখা! ২. বাচ্চাকে ঘরোয়া খাবারে অভ্যস্ত করা.....
বিস্তারিত

ইতিবাচক বিবৃতি

জিয়ানুর কবির,ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিষ্ট
নিজের স্বাস্থ্যকর ইমেজ নির্মাণ করার জন্য, অনেক মনোবিজ্ঞানী ইতিবাচক বিবৃতি ব্যবহার করা সহায়ক বলে মনে করেন। এই বিবৃতিগুলির উদ্দেশ্য হল আপনার মধ্যে থাকা ভাল গুণাবলীর কথা মনে করিয়ে দেওয়া এবং কষ্টকর পরিস্থিতিতে আপনাকে শক্তি, সাহস এবং স্থিতিস্থাপকতা দেবে। .......
বিস্তারিত

অলিগোহাইড্রামনিওস (Oligohydramnios) (এমনায়োটিক তরলের স্বল্পতা)

ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা),Consultant Sonologist
অলিগোহাইড্রামনিওস হল একটি বিশেষ কন্ডিশন যেখানে গর্ভাবস্থায় আপনার বেবির চার দিকে থাকা অ্যামনিয়োটিক তরলের পরিমাণ অনেক কমে যায়, এতে মা ও শিশু উভয়ে বিভিন্ন জটিলতার সম্মুখীন হওয়ায় সম্ভাবনা থাকে।......
বিস্তারিত

মহিলাদের ইনফার্টিলিটি দূর করার ক্ষেত্রে ডিম্বাণুর গুণাগুণ কেন গুরুত্বপূর্ণ?


ডাঃ হাসনা হোসেন আখী,এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য),এমএস (অবস এন্ড গাইনী)

ব্রেস্ট ফিডিং মায়েদের ডায়েট কেমন হওয়া উচিত?


নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,Bsc (Hon's) Msc (food & Nutrition)

লিম্ফোমাঃ রক্তের বিশেষ একপ্রকারের ক্যান্সার


ডাঃ গুলজার হোসেন ,বিশেষজ্ঞ হেমাটোলজিস্ট

ব্যস্ত জীবনে সুস্থ থাকতে ছোট ছোট পরিবর্তন আনুন


পুষ্টিবিদ মুনিয়া মৌরিন মুমু

ব্রেস্ট ক্যান্সার প্রতিরোধে যে পদক্ষেপটি সবার জন্য জরুরি


ডাঃ লায়লা শিরিন

কেন হাঁটবেন? কিভাবে হাঁটবেন ? কতটুকু হাঁটবেন?


ডা: অনির্বাণ মোদক পূজন।হৃদরোগ, বাতজ্বর ও উচ্চ রক্তচাপ রোগ বিশেষজ্ঞ

রুট ক্যানাল ( দাতেঁর ব্যথার) চিকিৎসা কি? কখন করাতে হয়?


ডা: এস.এম.ছাদিক,বি ডি এস (ডি ইউ),এম পি এইচ (অন কোর্স)

প্রেগ্ন্যান্সিতে 3D/4D আল্ট্রাসনোগ্রাম কখন কেন করাবেন।


ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা) ,,Consultant Sonologist

সম্পর্কের ক্ষেত্রে যৌনস্বাস্থ্যের গুরুত্বপূর্ণতা


ডা. ফাতেমা জোহরা

সত্যিই কি প্লাস্টিকের ডিম আর চালের অস্তিত্ব আছে?


পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন।

ডেংগি ও প্লেইটলেট(ডেংগু নিয়ে কিছু ভ্রান্ত আতঙ্ক)


ডাঃ গুলজার হোসেন

দাঁতের যত্নে গুরুত্বপূর্ণ ৮ টি টিপস


ডাঃ তারিকুল সরকার (তারেক)

মনের যত্ন


জিয়ানুর কবির

করোনায় ফুসফুস কে ভালো রাখবেন কি করে?


পুষ্টিবিদ জয়তী মুখার্জী

ত্বকের উজ্জ্বলতায় কিশমিশ


পুষ্টিবিদ মুনিয়া মৌরিন মুমু

মূত্রতন্ত্রের পাথর (urinary stone) (উপসর্গ, চিকিৎসা ও প্রতিকার)


ডাঃ মোহাম্মদ ইব্রাহিম আলী

শিশুদের জন্য ব্যায়াম কখন প্রয়োজন?


নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী

অফিসে পৌঁছে ক্ষুধা পেলে কি খাবো ?


পুষ্টিবিদ মুনিয়া মৌরিন মুমু

গর্ভবতী মহিলা কি কোভিড টীকা নিতে পারবেন ?


ডাঃ হাসনা হোসেন আখী,এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য),এমএস (অবস এন্ড গাইনী)

সম্পর্কের ক্ষেত্রে যৌনস্বাস্থ্যের গুরুত্বপূর্ণতা


ডা. ফাতেমা জোহরা

সত্যিই কি প্লাস্টিকের ডিম আর চালের অস্তিত্ব আছে?


পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন।

ডেংগি ও প্লেইটলেট(ডেংগু নিয়ে কিছু ভ্রান্ত আতঙ্ক)


ডাঃ গুলজার হোসেন

দাঁতের যত্নে গুরুত্বপূর্ণ ৮ টি টিপস


ডাঃ তারিকুল সরকার (তারেক)

মনের যত্ন


জিয়ানুর কবির