Royalbangla
রয়াল বাংলা ডেস্ক
রয়াল বাংলা ডেস্ক

সেরা 13 টি ফল যা ওজন কমাতে সহায়ক

খাদ্যাভ্যাস

ফল আমাদের শরীরের জন্য কতটা উপকারী তা কমবেশী আমরা সকলেই জানি। কিন্তু ফল কি ওজন কমাতে
  1. আপেল:
    আপেলে রয়েছে ফাইবার,ভিটামিন,মিনারেল,ফাইটোকেমিক্যালস ও এন্টিঅক্সিডেন্ট যা শরীরের পুষ্টিসাধন ও রোগ প্রতিরোধ ও মেটাবলিজম বাড়াতে সহায়ক। লো-ক্যালরি ডায়েট অনুসরণকারীদের জন্য এটি একটি ভাল ফল। তাই প্রতিদিন একটি আপেল খাওয়ার উপকারিতা অনেক।
  2. নাশপাতি:
    নাশপাতিতে প্রচুর ফাইবার রয়েছে যা রক্তের সুগার লেভেল কমাতে সহায়ক। এছাড়াও এতে পটাশিয়াম থাকায় এটি রক্তের কোলেস্টেরল কমিয়ে হার্টের উপকার করে।
  3. কলা:
    কলায় রয়েছে ভিটামিন বি-6 যা রোগ প্রতিরোধে সহায়ক। এছাড়াও এতে পটাসিয়াম ও ফাইবার ও আয়রন রয়েছে যা পরোক্ষভাবে ওজন নিয়ন্ত্রণে সহায়ক।
  4. ব্লবেরিজঃ
    এতে রয়েছে সর্বোচ্চ পরিমানে এন্টি-অক্সিডেন্ট যা কোলস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করে , হাইপারটেনশন কমায় ও মুটিয়ে যাওয়া প্রতিরোধ করে।
  5. স্ট্রবেরি:
    স্ট্রবেরি adiponectin এবং leptin হরমোন উৎপাদন বাড়িয়ে দেয়। এ হরমোন দুটি চর্বি কমাতে সহায়ক। এছাড়াও এটি মেটাবলিজম বাড়ায় এবং ক্ষতিগ্রস্থ টিস্যু নিরাময়ে সহায়ক।
  6. গ্রেপফ্রট বা শরবতি লেবু বা জাম্বুরা জাতীয় ফল
    এ জাতীয় ফলে প্রচুর আঁশ পাওয়া যায় এগুলোতে ক্যালরি থাকে অত্যন্ত কম। তাই ওজন নিয়ন্ত্রণে এ ফল কার্যকরী।
  7. পীচফল বা জাম জাতীয় ফল:
    এধরনের ফলে থাকে হার্টের জন্য উপকারী পটাসিয়াম এবং প্রচুর পরিমানে এন্টি-অক্সিডেন্ট যা মেটাবলিজম বাড়ায়।
  8. নারিকেল:
    নারিকেলে রয়েছে ট্রাইগ্লিসারািইড যা লিভারের মেটাবলিজম 30% পর্যন্ত বাড়াতে পারে তাছাড়া এতে রয়েছে পটাশিয়াম এবং প্রচুর আঁশ।
  9. ডালিম বা ডালিম জাতীয় ফলঃ
    ডালিমে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে এন্টি-অক্সিডেন্ট । এটি হার্টের ধমনীতে চর্বির স্তর প্রতিরোধ করে।
  10. অরেঞ্জ বা কমলালেবু
    কমলালেবু মেটাবলিজম বাড়াতে সহায়ক । এতে আছে ভিটামিন সি,থায়ামিন , ফোলেট এবং প্রচুর আঁশ
  11. আম :
    আম মেটাবলিজম বাড়তে সহায়ক । আমে অন্যান্য ফলের চেয়ে ক্যালরি বেশি থাকরলও এতে আছে ভিটামিন সি,এ এবং ক্যালসিয়াম।
  12. পেপে :
    পেপে মেটাবলিজম বাড়তে সহায়ক । এতে আছে এন্ডি-অক্সিডেন্ট , ক্যারোটিন ,ভিটামিন সি ও ফ্লাভোনয়েডস।
  13. আমড়া:
    আমড়াতে আছে ভিটামিন সি,ক্যালসিয়াম, ক্যারোটিন প্রভৃতি। রক্তের কোলেস্টরলের মাত্রা কমায় এবং হৃদরোগ ও স্ট্রোকের ঝুকি কমায়। এটি বদহজম ও কোষ্ঠকাঠিন্য দুর করে।
  1. royalbangla.com এ আপনার লেখা বা মতামত বা পরামর্শ পাঠাতে পারেন এই এ‌্যড্রেসে royal_bangla@yahoo.com
পরবর্তী পোস্ট

জেনে নিন থাইরয়েড সমস্যায় ওষুধ খাওয়ার সঠিক নিয়ম


আক্কেল দাঁত কখন এবং কেন ফেলতে হয়?

ডা: এস.এম.ছাদিক,ওরাল এন্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারী
সাধারণত আক্কেল দাঁত সম্পূর্ণভাবে উঠার সময় হলো ১৭-২৫ বছর বয়স । কিন্তু ১৭-২০ বছর বয়সের মধ্যেই বুঝা যায় আক্কেল দাঁত সঠিকভাবে উঠবে কি না।....
বিস্তারিত

শালগম এর উপকারীতা

পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন,পুষ্টি কর্মকর্তা
শালগম অত্যন্ত পুষ্টিকর খাদ্য হিসেবে সুপরিচিত। ভিটামিন এ, সি এবং ভিটামিন কে তে ভরপুর থাকে শালগম। শালগমের সবচাইতে ভালো দিক হচ্ছে এদের ক্যালরি খুব কম থাকে। নিয়মিত শালগম খাওয়ার কিছু কারণ সম্পর্কে জেনে নিই চলুন।........
বিস্তারিত

সাইনাস আর সাইনুসাইটিস, আসুন সহজে বুঝে নিই.

ডা: এস.এম.ছাদিক,ওরাল এন্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারী
স্বাভাবিক নিশ্বাস নিতে মনে হয় নাকে কি যেনো আটকে আছে,, আবার নাক দিয়ে পানিও পড়ে। গায়ে হালকা জ্বর ও আছে, আবার সাথে মাথা ব্যাথা। তিনি ডাক্তারের কাছে গেলেন, ডাক্তার বললেন, আপনার সাইনুসাইটিস হয়েছে,........
বিস্তারিত

গর্ভাবস্থায় কি চা-কফি পান করা যায়?

ডাঃ সরওয়াত আফরিনা আক্তার (রুমা) ,Consultant Sonologist
চা ও কফি আপনাদের অনেকেরই প্রছন্দের পানীয়। তাই গর্ভাবস্থায়ও খেতে চান, তাই না? এ ক্ষেত্রে আমাদের জানা উচিত এই পানীয় পান করা যাবে কি না, গেলে কতটুকু করা যাবে।......
বিস্তারিত

বাচ্চাদের ফল ও সবজি খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলবেন কিভাবে?


পুষ্টিবিদ মোঃ ইকবাল হোসেন।বিএসসি (সম্মান), এমএসসি (প্রথম শ্রেণী) (ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি)

মহিলাদের ইনফার্টিলিটি দূর করার ক্ষেত্রে ডিম্বাণুর গুণাগুণ কেন গুরুত্বপূর্ণ?


ডাঃ হাসনা হোসেন আখী,এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য),এমএস (অবস এন্ড গাইনী)

কিডনী সিস্ট কতটা ঝুঁকিপূর্ণ ?


ডাঃ মোহাম্মদ ইব্রাহিম আলী,এম.বি.এস,বিসিএস (স্বাস্থ্য) ,এমএস (ইউরোলজি)

শিশুদের ডায়েট কেমন হওয়া উচিত ?


নিউট্রিশনিস্ট সুমাইয়া সিরাজী,Bsc (Hon's) Msc (food & Nutrition)

লিভারের সুস্থতায় কি করবেন?


নুসরাত জাহান, ডায়েট কনসালটেন্ট

অনিয়মিত পিরিয়ডের কারণ , চিকিৎসা ও ঘরোয়া প্রতিকার


ডাঃ হাসনা হোসেন আখী